Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৪:১৪
আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:২৪
দিল্লির ওয়াররুমে গোপন বৈঠক মোদির!
দীপক দেবনাথ, কলকাতা
দিল্লির ওয়াররুমে গোপন বৈঠক মোদির!

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরে উরির সেনা ক্যাম্পে জঙ্গি হামলার ঘটনার পর থেকেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে পাল্টা বদলা নেওয়ার দাবি ক্রমশ জোরালো হচ্ছে। নিহত জওয়ানের পরিবারের লোকেদের পাশপাশি সেলিব্রিটি, রাজনীতিবিদ থেকে সেনার একাংশ প্রত্যেকেরই বক্তব্য- ‘অনেক হয়েছে, আর নয়। এবার সময় এসেছে পাকিস্তানে ওপরও পাল্টা আঘাত হানা’।  

ঠিক সেই পরিপ্রেক্ষিতেই দিল্লিতে সেনাবাহিনীর ওয়ার রুম পরিদর্শন করলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। উরিতে জঙ্গি হামলার তিনদিন পর গত মঙ্গলবার দিল্লিতে ওয়াররুমে গিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন মোদি। যুদ্ধের সময় সাউথ ব্লকের এই ঘর থেকে কন্ট্রোল রুম হিসেবে ব্যবহার করা হয়। সেই ঘরেই দীর্ঘ দুই ঘণ্টা বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী। তার সঙ্গে ছিলেন দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল, স্থল সেনাপ্রধান দলবীর সিং সুহাগ, বিমানবাহিনীর প্রধান অরূপ রাহা ও নৌবাহিনীর প্রধান সুনীল লাম্বা। গভীর রাত পর্যন্ত চলে এই বৈঠক। শত্রুঘাঁটিতে কিভাবে আঘাত হানা সম্ভব, তা বালুর মডেল করে, পয়েন্ট করে প্রধানমন্ত্রীকে বোঝান তিন সেনাপ্রধান। যদি সত্যিই যুদ্ধের মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি হয় সেক্ষেত্রে ভারত কিভাবে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে পাল্টা আঘাত করতে পারে কিংবা শত্রুপক্ষের সীমানায় ঢুকে জঙ্গি ঘাঁটি কিংবা পাক সেনার ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়া যায়, সেসব নিয়েই বিস্তারিত তুলে ধরেন সেনাপ্রধানরা।

গ্লোবাল ফায়ারপাওয়ার (জিএফপি) র‌্যাঙ্ক অনুযায়ী বিশ্বের ১২৬টি দেশের মধ্যে চতুর্থ তালিকায় রয়েছে ভারত অন্যদিকে পাকিস্তান রয়েছে ১৩তম স্থানে। ভারতের মোট জনসংখ্যা যেখানে ১২৫ কোটি ১৬ লাখ ৯৫ হাজার ৫৮৪ সেখানে পাকিস্তানের জনসংখ্যা ১৯ কোটি, ৯০ লাখ, ৮৫ হাজার, ৮৪৭।  

ভারতীয় সেনায় কর্মকর্তা, জওয়ান ও সবধরনের কর্মী মিলিয়ে মোট সংখ্যা ১৩,২৫,০০০। সেখানে পাকিস্তানের সেনার সদস্য সংখ্যা মাত্র ৬,২০,০০০। অর্থাৎ অর্ধেকেরও কম। ভারতের কাছে মোট এয়ারক্রাফ্ট রয়েছে ২,০৮৬টি, সেখানে পাকিস্তানের কাছে রয়েছে মাত্র ৯২৩টি (অর্ধেকেরও কম)। ভারতের কাছে ট্যাঙ্ক রয়েছে ৬,৪৬৪টি।  পাকিস্তানের কাছে ট্যাঙ্কের সংখ্যা মাত্র ২৯২৪টি। ভারতের কাছে বড় কামান রয়েছে ৭,৪১৪ টি। পাকিস্তানের কাছে কামান রয়েছে ৩,২৭৮টি। ভারতের কাছে হেলিকপ্টার রয়েছে ৬৪৬টি, পাকিস্তানের আছে ৩০৬টি। ভারতের যুদ্ধ বিমান রয়েছে ৬৭৯টি পাকিস্তানের কাছে আছে ৩০৪ টি। আঘাত হানতে পারে এমন বিমান যেখানে ভারতের আছে ৮০৯টি পাকিস্তানের কাছে আছে ৩৯৪টি।  

নৌবাহিনীর শক্তিতেও পাকিস্তানের থেকে অনেক এগিয়ে ভারত। ভারতীয় নৌবাহিনীর কাছে যেখানে রয়েছে ১৪টি যুদ্ধ জাহাজ, পাকিস্তানের ঘরে রয়েছে ৫টি।  


বিডি-প্রতিদিন/ ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/ আফরোজ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow