Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৯:৫২
সঙ্গমে আপত্তি করায় সঙ্গিনীর মুখ ফাটিয়ে দিল যুবক!
অনলাইন ডেস্ক
সঙ্গমে আপত্তি করায় সঙ্গিনীর মুখ ফাটিয়ে দিল যুবক!

অনেক পুরুষ মনে করেন মেয়েরা মুখে না বললেও অন্তরে সেই কিন্তু ঠিকই হ্যা বলেন। এই ধারণায় বেঁচে থাকা পুরুষরা মনে মনে এখনও একবিংশ শতাব্দীতেও মহিলাদের নিজস্ব ভাবনাকে মেনে নিতে পারেননি। কিন্তু সময় আর আগের মত নেই। সময় এখন অনেকখানি বদলে গিয়েছে। এখন মেয়েরা তাদের ব্যাক্তিগত মতামত আর সিদ্ধান্তকে অনেক বেশি মুল্যায়ন করে থাকেন। আর মেয়েরাও আশা করেন তার সঙ্গীও তার মতামতকে মূল্যায়ন করবে। কিন্তু কিছু কিছু পুরুষ আছে যারা নিজেদের পুরুষত্ব জাহির করার জন্য মেয়েদের কোনও বিষয়ে আপত্তি থাকলে তা সহজে মেনে নিতে পারেন না। গত কয়েকদিন আগেই যেমন প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হওয়ার কারণে এক যুবতীকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে মারল দিল্লির এক যুবক।

এবার প্রায় একই ঘটনার ছায়া দেখা গেল ব্রিটেনে। সঙ্গিনী যৌন মিলনের প্রস্তাবে সায় না দেওয়ায় ভয়াবহ আঘাত করে তাঁর মুখ ফাটিয়ে দিল ওয়েন হোবান নামের এক ব্যক্তি। স্টিফানি লিটলহুড অন্তরঙ্গ হতে না চাইলে ওয়েন তাঁকে মাটিতে ফেলে ৪০ বার মুখে আঘাত করে বলে অভিযোগ। এই ঘটনার জেরে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় স্টিফানিকে।

জানা গিয়েছে, প্রচন্ড আঘাতে তাঁর চোয়াল ভেঙে গিয়েছে। এই গভীর আঘাত আদৌ সম্পূর্ণভাবে নিরাময় করা যাবে কি না, তা নিয়েও ধন্দে রয়েছেন চিকিৎসকরা।

সঙ্গীর হাতে চরম হেনস্তা হওয়ার ঘটনাটি ফেসবুকে জানিয়েছিলেন স্টিফানি। পোস্ট করেছিলেন হাসপাতালে তার চরম অসুস্থ মুহূর্তের কিছু ছবি। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পরই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। গ্রেফতার করা হয় ওয়েনকে। তাকে শাস্তি হিসাবে ১৬ মাসের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

কিন্তু এখনও ভয় কাটেনি স্টিফানির। জেল থেকে ফিরে এসে ওয়েন আবারও আক্রমণ করতে পারে তাকে, এমনটাই মনে করছেন তিনি।

বিডি-প্রতিদিন/তাফসীর

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow