Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০৯:২৭
অত্যাধুনিক অস্ত্র এখন সাধারণ মানুষের হাতে : হিলারি
অনলাইন ডেস্ক
অত্যাধুনিক অস্ত্র এখন সাধারণ মানুষের হাতে : হিলারি

মার্কিন পুলিশদের কাছে যে ধরণের অস্ত্র আছে, তার থেকেও অত্যাধুনিক অস্ত্র আছে সাধারণ মানুষের হাতে। সে কারণে এখনও রাস্তায় সাধারণ মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে বলে মত হিলারি ক্লিনটনের।

তার মতে, যে সকল মানুষ অস্ত্র রাখার যোগ্যতা রাখে না বা যাদের বাজে অতীত রয়েছে তাদের হাত থেকে অস্ত্র নিয়ে নেয়ার পক্ষে আমাদের অবস্থান। আমরা রাস্তায় অস্ত্রের পরিমাণ কমাতে চাই আমরা।
 
এর উত্তরে ট্রাম্প বলেন, না, আমি এর সঙ্গে একমত নই। তবে আমি অস্ত্র হ্রাসের বিষয়ে একমত। তবে সেটা সাধারণ মানুষের কাছ থেকে নয়। বরং গ্যাংস্টার ও বিভিন্ন অপরাধীদের কাছ থেকে।
 
এর আগে অর্থনৈতিক পরিকল্পনা বিষয়ক বিতর্কে হিলারি বলেন, নতুন চাকরীর সুযোগ সৃষ্টি করব আমরা, নতুন কাজ শুরু করব। বড় কোম্পানিগুলো তাদের লভ্যাংশ ভাগ করে নেব। শুধু উচ্চ পর্যায়ের এক্সিকিউটিভদের সঙ্গে নয়। বরং সবার সঙ্গে।
 
আমাদের চাকরীর সুযোগ বিদেশিরা চুরি করছে। সেই সঙ্গে বিদেশিদের কাছ থেকে আমাদের কোম্পানিগুলোকে রক্ষা করতে হবে। বিদেশি কোম্পানিগুলো ও আমাদের ট্যাক্স ব্যবস্থা এক হতে পারে না।
 
এর উত্তরে হিলারি বলেন, আমরা ট্রাম্পের অর্থনীতির এই মতবাদকে 'ট্রাম্পড আপ ট্রিকেল ডাউন' নাম দিয়েছি। কারণ এভাবে অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতি করা খুব একটা সম্ভব হবে না বলেই আমরা মনে করি। তার বদলে আমরা যদি মধ্য আয়ের মানুষগুলোকে নিয়ে ভাবি। আমরা যদি তাদের জন্য নতুন নতুন চাকরীর সুযোগ তৈরি করতে পারি, তাহলে সেটি হবে কার্যকর ব্যবস্থা।
 
ট্রাম্প তার উত্তরে বলেন, না, শুধু চাকরীর সুযোগ সৃষ্টি করলেই হবে না। সেই সুযোগগুলো রক্ষা করতে হবে। সেই সঙ্গে আমাদের দেশের ব্যবসাগুলোকে চীনের ব্যবসা থেকে রক্ষা করতে হবে। যা গত ৮ বছর ধরে করা সম্ভব হচ্ছে না।
 
হিলারি ক্লিনটন অভিযোগ করে বলেন, ট্রাম্প তার বেশ কিছু ব্যবসার ক্ষেত্রে নিজ কর্মচারীদের বেতন পরিশোধ করেনি। হিলারি এ সময় বলেন, আমি খুব ভাগ্যবান, কারণ আমার বাবা ট্রাম্পের সঙ্গে ব্যবসা করেনি।
 
এর উত্তরে ট্রাম্প বলেন, ব্যবসা কিভাবে করতে হয় তা আমি জানি। আর যে অভিযোগ করা হচ্ছে। তা সঠিক নয়। এ সময় উল্টো প্রশ্ন করা হয়, আপনি কি বড় ব্যবসায়ীদের ব্যবসা করতে দেখেছেন।

বিডি-প্রতিদিন/ ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow