Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ৩ অক্টোবর, ২০১৬ ২২:১১
টানটান উত্তেজনার মধ্যে কাশ্মীর সফরে রাজনাথ
দীপক দেবনাথ, কলকাতা:
টানটান উত্তেজনার মধ্যে কাশ্মীর সফরে রাজনাথ

কাশ্মীরের উরিতে সেনা ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলা এবং পাক শাসিত কাশ্মীরে ভারতীয় সেনা বাহিনীর সার্জিক্যাল অপারেশনের পর সীমান্তে টানটান উত্তেজনার মধ্যে কাশ্মীর পরিদর্শনে গেলেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। দুই দিনের সফরে সোমবার কাশ্মীরের লেহ এবং কারগিল পরিদর্শনে গেছেন রাজনাথ।

কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করতে সেখানকার সাধারণ মানুষদের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি তাদের পরামর্শও নেবেন স্বরাষ্টমন্ত্রী। কথা বলবেন সেখানকার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গেও।
 
সোমবার দুপুরের দিকে কাশ্মীরের লেহতে পৌঁছান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এই সফর নিয়ে তিনি জানান, এখানকার মানুষরা যেসব সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন আমরা সরকারের তরফে সেই সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবো।

গত ৮ জুলাই উপত্যকায় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি বুরহান ওয়ানির মৃত্যুর পর উপত্যকায় অশান্তি শুরু হওয়ার পর থেকে মোট চারবার কাশ্মীর সফরে গেলেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। উপতক্যার সমস্যা সমাধান করতে গত সেপ্টেম্বরে কাশ্মীরের সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে একটি বৈঠকও করেন রাজনাথ।

এদিকে লেহ ও কার্গিল সফরের চব্বিশ ঘন্টা আগেই বারামুলায় বিএসএফ এবং রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের সেনা ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলা নিয়েও মুখ খুলেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। রাজনাথ বলেন, ‘সেনা ঘাঁটিতে হামলাকারী পাক মদদপুষ্ট জঙ্গিদের যোগ্য জবাব দিচ্ছে ভারতের সেনা জওয়ান’। রাজনাথের বক্তব্য, 'দেখুন না, এরপর কি হয়। '
 
প্রসঙ্গত, গত ১৮ সেপ্টেম্বর উরিতে সেনা ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলায় নিহত হয় ১৯ জওয়ান। এরপর গত ২৯ সেপ্টেম্বর নিয়ন্ত্রণ রেখা (এলওসি) পেরিয়ে পাক শাসিত কাশ্মীরে গিয়ে জঙ্গি ঘাঁটি গুড়িয়ে দেয় ভারতীয় সেনা। সেই ঘটনার চারদিনের মাথায় বারামুলায় বিএসএফ ও রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের ঘাঁটিকে লক্ষ্য করে ভারী গোলাবর্ষণ করে জঙ্গিরা। পাশাপাশি পাঞ্জাবের গুরুদাবপুরের বিএসএফ’এর পোস্ট লক্ষ্য করেও গুলি চালায় জঙ্গিরা। সেনাবাহিনীর গুলিতে নিহত হয়েছে দুই জঙ্গি। সেনার ধারণা দুইটি দলে ভাগ হয়ে জঙ্গিরা হামলা চালিয়েছে। বাকী জঙ্গিদের খোঁজে চলছে জোর অভিযান। জঙ্গিদের গুলিতে এক সেনা জওয়ানও নিহত হয়।


বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow