Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০৯:০৬
পশ্চিম সীমান্তে চাপ বাড়াতে চায় পাকিস্তান
অনলাইন ডেস্ক
পশ্চিম সীমান্তে চাপ বাড়াতে চায় পাকিস্তান

উরি হামলা, সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর স্বাভাবিকভাবেই সীমান্তে চূড়ান্ত সতকর্তা। মোদি সরকারের শীর্ষ কর্মকর্তাদের ধারণা পাকিস্তান পশ্চিম সীমান্তেও চাপ বাড়াতে চাইছে।

বিএসএফের দাবি, কেন্দ্রের কাছে আন্তর্জাতিক সীমান্তে আধাসেনা বাড়াতে হবে। পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে দ্রুত পশ্চিম সীমান্তে চার ব্রিগেড বাড়তি বিএসএফ মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেয় নর্থ ব্লক। সোমবার লাদাখের পরে গতকাল কার্গিল ও দ্রাস এলাকার সীমান্ত পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। সীমান্তে সেনা প্রস্তুতি নিয়ে কথা বলেন সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে।  খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।  

উত্তপ্ত হয়ে ওঠা জম্মু-কাশ্মীর সীমান্ত নিয়ে কূটনৈতিকভাবে উভয় পক্ষই চিন্তিত। তবে সীমান্তে উত্তেজনা কমানোর চেষ্টা শুরু করলেও তার কোনো বাস্তব প্রতিফলন এখনও নিয়ন্ত্রণরেখায় দেখা যাচ্ছে না। ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের মতে, আগামী কিছুদিন সীমান্তে হামলা চালিয়ে যাবে পাকিস্তান। শীত আসার আগেই যত বেশি সংখ্যক জঙ্গি অনুপ্রবেশ করাতে চাইছে পাক সেনা।

এদিকে, পাঞ্জাবের অমৃতসরের কাছে ইরাবতী নদীতে পাকিস্তানের একটি ডিঙি নৌকা উদ্ধার করেছে বিএসএফ। গতকাল ভোরে ওই নৌকাটি পাকিস্তানের দিক থেকে অমৃতসরের দিকে ভেসে আসে। জলপথে হানার আশঙ্কা থাকায় এখন পাক নৌকা নিয়ে সতর্ক সীমান্তরক্ষীরা। তবে এই নৌকাটিতে একটি পাকিস্তানি পতাকা ছাড়া কিছু পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন বিএসএফের ডিআইজি আর এস কাটারিয়া। তিনি জানান, পরে ফ্ল্যাগ মিটিং-এ পাক রেঞ্জার্সও পাকিস্তান থেকে নৌকা ভেসে আসার কথা মেনে নিয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দু’টি পাক নৌকা করাচি থেকে ভারতীয় জলসীমার দিকে আসছে বলে খবর পেয়েছেন গোয়েন্দারা। আনন্দবাজার পত্রিকা।


বিডি-প্রতিদিন/ ০৫ অক্টোবর, ২০১৬/ আফরোজ

 

 

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow