Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০৪:২৯
ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন হল অ্যাসাঞ্জের
অনলাইন ডেস্ক
ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন হল অ্যাসাঞ্জের

উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ এর ইন্টারনেট কানেকশন কেটে দেয়া হয়েছে। শনিবার হিলারি ক্লিনটনের একটি বক্তব্য ফাঁস করার পরে তার সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়।

তবে জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ যুক্তরাজ্যের ইকুয়েডরে দূতাবাসে অবস্থানরতই আছেন। প্রতিষ্ঠানটি তাদের একটি বিবৃতিতে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।   

উইকিলিকসের প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা নিশ্চিত করতে পারি শনিবার জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের ইন্টারনেট কানেকশন কেটে দেয়া হয়েছে। অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠান গোল্ডম্যান স্যাক্সকে উদ্দেশ্য করে হিলারির এক বক্তব্য প্রকাশের পরে তার সংযোগ বিচ্ছিন্ন  করা হয়।
 
গত দুই সপ্তাহ ধরে হিলারির প্রচারণা হ্যাকিংয়ের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ধারণা করা হয়েছে বেনামি হ্যাকারদের থেকে হিলারির প্রচারণা প্রধান জন পডেস্টা ৪০ থেকে ৫০ হাজার মেইল সংগ্রহ করেছে। রাশিয়ান হ্যাকাররা এর পেছনে রয়েছে বলে অভিযোগ করেছে ডেমোক্রেটরা।

উল্লেখ্য সুইডেনে দুই নারীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ থেকে পালিয়ে অ্যাসাঞ্জ ২০১২ সাল থেকে লন্ডনে ইকুয়েডরের দূতাবাসে আশ্রয় নিয়েছেন। ইন্টারনেট বন্ধ করার বিষয়ে ইকুয়েডর কোনো বক্তব্য দেয়নি। তবে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী গুইলেম লং বলেছেন, অ্যাসাঞ্জকে যে প্রেক্ষাপটে আশ্রয় দেয়া হয়েছিল সেটা বজায় আছে।

ইকুয়েডরের বামপন্থি প্রেসিডেন্ট রাফায়েল কোরিয়া অ্যাসাঞ্জের মতপ্রকাশের স্বাধীনতার বিষয়ে দীর্ঘদিন সমর্থন করে আসছেন। যদিও এর জের ধরে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তাদের সম্পর্কের অবনতি হয়েছে, ২০১১ সালে রাষ্ট্রদূতকে পর্যন্ত প্রত্যাহার করে নেয় যুক্তরাষ্ট্র। সেই কোরিয়া এবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হিলারি ক্লিনটনের পক্ষে প্রকাশ্যে বক্তব্য দিয়েছেন। ডেমোক্রেটিক পার্টির এই প্রার্থী সম্পর্কে কোরিয়া বলেন, বিশ্ব ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভালোর জন্য আমি চাইবো যাতে হিলারি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হন।
 

বিডি-প্রতিদিন/১৯ অক্টোবর, ২০১৬/তাফসীর

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow