Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৬:৫৫ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৯:৩২
নির্দোষ প্রমাণে মধ্যযুগীয় বর্বরতার শিকার ৫ কিশোর
অনলাইন ডেস্ক
নির্দোষ প্রমাণে মধ্যযুগীয় বর্বরতার শিকার ৫ কিশোর

রামায়ণের যুগের মতো আজও নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে অগ্নিপরীক্ষা দিতে হচ্ছে! নিজেদের সত্যি প্রমাণ করতে ফুটন্ত তেলে হাত ডোবাতে বাধ্য হলেন পাঁচ কিশোর। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় পাঁচজনই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

তাদের বয়স আট থেকে ১৫র মধ্যে।  

বর্বরোচিত এই ঘটনা মধ্যপ্রদেশের রায়োটি পুলিশ স্টেশনের অন্তর্গত নরসিংহপদা গ্রামে সোমবার বিকেলে ঘটেছে। এদের এক বন্ধুর বাবা ছগন এই ঘটনা ঘটায়।  

ছগনের মোবাইল ফোন এদের মধ্যেই কেউ চুরি করেছে বলে সন্দেহ করে প্রথমে রাজু নামে ১৩ বছরের একটি ছেলেকে বেধড়ক মারধর করেন তিনি। তাতেও কিছু জানতে না পেরে রাজুর বাকি বন্ধুদেরও চেপে ধরেন তিনি।

তারা সত্যি কথা বললে ফুটন্ত তেলে হাত ডোবালেও কিছু হবে না বলে ছেলেগুলোকে বোঝান তিনি। তারপর তারা যে নির্দোষ তা প্রমাণ করতে জোর করে ছেলেগুলোর হাত ফুটন্ত তেলে চুবিয়ে দেয় ছগন।  

রাজু বাদে আহত পাঁচ কিশোর হলো- বাবলু (১৫), সোনু (৯), হেমরাজ (১৩) এবং সন্দীপ (৮)। গুরুতর আহত পাঁচজনের হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে। পাশের গ্রামে গা-ঢাকা দিয়ে থাকা ছগনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বিডি প্রতিদিন/২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/এনায়েত করিম 

আপনার মন্তব্য

up-arrow