Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৯ মে, ২০১৭ ০৩:২৭
আপডেট : ১৯ মে, ২০১৭ ১৩:৫৯
কুলভূষণ সম্পর্কিত অজানা ১০টি তথ্য
অনলাইন ডেস্ক
কুলভূষণ সম্পর্কিত অজানা ১০টি তথ্য
ফাইল ছবি

কুলভূষণ যাদবকে নিয়ে অনেক দিন ধরেই ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে টানাপোড়েন চলছে। আন্তর্জাতিক আদালতের বিচারে ফাঁসির আদেশে স্থগিতাদেশ মিললেও বিতর্ক যে এখনই থেমে যাবে, এমন ভাবার কারণ নেই। আমাদের আককের এই প্রতিবেদনে জেনে নিন, কুলভূষণ সম্পর্কিত ১০টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য-

১। ১৯৭০ সালের ১৬ এপ্রিল মহারাষ্ট্রের সাংগিলে জন্ম কুলভূষণের। বাবা ছিলেন মহারাষ্ট্র পুলিশের অফিসার। দুই সন্তানকে নিয়ে যাদবের স্ত্রী ভারতের মুম্বাইয়ের পোয়াইতে বাস করেন।

২। পাকিস্তানের ইন্টার সার্ভিসেস পাবলিক রিলেশনসের তরফ থেকে দাবি করা হয়, ভারতীয় গুপ্তচর সংস্থা 'র'-এর এজেন্ট কমান্ডার কলভূষণ যাদব ওরফে হুসেন মুবারক পটেল গত ২০১৬ সালের ৩ মার্চ বালুচিস্তান থেকে গ্রেফতার হন।

৩। পাকিস্তানি সেনা আইন অনুযায়ী, ফিল্ড জেনারেল কোর্ট মার্শালে ভারতীয় চর হিসেবে যাদবের বিচার করা হয় এবং তার মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয় গত ১০ এপ্রিল।

৪। পাকিস্তানি সেনাদের দাবি, তিনি পাকিস্তানে চর হিসেবে ঢুকেছিলেন এবং সে দেশে অন্তর্ঘাতমূলক কার্যকলাপে যুক্ত ছিলেন। সেই কারণেই বালুচিস্তান থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

৫। ১৯৮৭ সালে কুলভূষণ ন্যাশনাল ডিফেন্স অ্যাকাডেমিতে যোগ দেন এবং ১৯৯১ সালে ভারতীয় নৌসেনায় যোগ দেন।

৬। চাকরি থেকে অবসরের পরে কুলভূষণ ইরানের চাবাহারে গিয়ে ব্যবসা শুরু করেন।

৭। পাকিস্তানের অভিযোগ, ২০০১ সালে সংসদ ভবনে হামলার পরে ভারতীয় চর হিসেবে তথ্য দেওয়ার কাজ করতেন কুলভূষণ। তিনি ২০০৩ সালে ভারতের গোয়েন্দা বিভাগে যোগ দেন।  

৮। ভারত সরকারের দাবি, কুলভূষণকে ইরান ও পাকিস্তান সীমান্ত এলাকা থেকে অপহরণ করে জয়েশ উল আদি নামে জঙ্গি সংগঠন। এর পরেই তার বিরুদ্ধে মিথ্যা চরবৃত্তির অভিযোগ আনা হয়।

 

বিডি প্রতিদিন/ ১৭ মে, ২০১৭/ আব্দুল্লাহ সিফাত-৭

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow