Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : ১৭ জুলাই, ২০১৭ ২২:০০ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৭ জুলাই, ২০১৭ ২৩:১৯
ভারত চাইলেই পাকিস্তানকে উচিত শিক্ষা দিতে পারে!
অনলাইন ডেস্ক
ভারত চাইলেই পাকিস্তানকে উচিত শিক্ষা দিতে পারে!

নতুন করে ভারত-পাক সীমান্তে উত্তেজনা। সীমান্তে লাগাতার ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে হামলা পাকিস্তানের।

গত ৪৮ ঘন্টায় লাগাতার সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান। সীমান্ত সংলগ্ন জনবসতিপূর্ণ এলাকাগুলিকে টার্গেট করে হেভি শেলিং করছে পাকিস্তান। পাক সেনার গোলায় এক ভারতীয় সেনা ও এক কিশোরীর মৃত্যু হয়। এরপরেই ভারতের পক্ষ থেকে পাকিস্তানকে কড়া আক্রমণ করা হয়। ফোনে কথা হয় দুই দেশের সেনার ডিরেক্টর জেনারেল মিলিটারি অপারেশন্স (ডিজিএমও)-দের মধ্যে। ফোনে পাক সেনাকে জানিয়ে দেওয়া হয়, ভারতেরও প্রত্যাঘাতের অধিকার রয়েছে। আর সেটা যদি পাল্টা করা হয় তাহলে পাকিস্তান ক্ষতি অনেক বেশি হবে।

কলকাতা টুয়েন্টিফোর'র খবরে বলা হয়, ভারতীয় সেনার ডিজিএমও লেফটেন্যান্ট জেনারেল এ কে ভট্ট পাক সেনাকে স্মরণ কয়িয়ে দেন, নিয়ন্ত্রণরেখায় ভারত বরাবর শান্তি বজায় রাখার চেষ্টা চালাচ্ছে। সেনা মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল আনন্দ জানান, পাক সেনা কর্তাকে ভট্ট বলেছেন, ভারত নিষ্ঠার সঙ্গে নিয়ন্ত্রণরেখায় শান্তি ও স্থিতাবস্থা বজায় রাখছে। কিন্তু পাকিস্তান তা করছে না। লাগাতার যুদ্ধ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে যাচ্ছে। জানা গেছে, পাকিস্তানের হয়ে এই কথোপকথনে অংশ নেন দেশটির ডিজিএমও মেজর জেনারেল সাহির শামসেদ মির্জা। তিনি অভিযোগ করেন, গত সপ্তাহে কুপওয়ারা জেলার কেরন সেক্টরে ভারতের হামলায় চার পাক সেনার মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আতমুকাম সেক্টরে এক পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

আপনার মন্তব্য

up-arrow