Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২১ এপ্রিল, ২০১৮ ১০:৩৮ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২১ এপ্রিল, ২০১৮ ১৪:৪৪
বৈশাখ উদযাপন করতে গিয়ে ধর্ম পরিবর্তন করে বিয়ে!
অনলাইন ডেস্ক
বৈশাখ উদযাপন করতে গিয়ে ধর্ম পরিবর্তন করে বিয়ে!

বৈশাখী উৎসব পালন করতে পাকিস্তানে গিয়ে বিয়ে করে সে দেশেই থাকতে শুরু করেছেন ভারতের এক শিখ বিধবা। নাম কিরণ বালা, বয়স বছর ৩১। ভারতের পাঞ্জাবের হোশিয়ারপুরের গড়শঙ্কর শহরের বাসিন্দা কিরণ বিয়ে করে ফেলেছেন লাহোরের এক বাসিন্দাকে। নিজের ৩টা ছেলেমেয়েকে রেখে গেছেন বৃদ্ধ শ্বশুরের কাছে। খবর এবিপি আনন্দের।

প্রতিবেদনে বলা হয়, শিরোমণি গুরদোয়ারা প্রবন্ধক কমিটির নেতৃত্বাধীন জাঠার সঙ্গে বৈশাখী উৎসব পালন করতে গত ১২ এপ্রিল পাকিস্তানে রওনা দেন কিরণ। আটারি সীমান্ত পার হয়ে প্রতিবেশী দেশে যান তারা। এরপর ১৬ তারিখ লাহোরের দারুল উলাউম নইমিয়ায় গিয়ে ইসলাম গ্রহণ করেন তিনি। তারপর বিয়ে করেন আজমকে।

এদিকে, কিরণের আচমকা এমন সিদ্ধান্তের কোনো কূল-কিনারা পাচ্ছে না ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তাঁকে জোর করে ধর্ম পরিবর্তন করিয়ে বিয়ে করতে বাধ্য করা হয়েছে কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়। শিরোমণি গুরদোয়ারা প্রবন্ধক কমিটি অভিযোগ করেছে, ঘটনা কোনো দিকে যাচ্ছে তা বুঝতে ভারতীয় গোয়েন্দা কর্মকর্তারা পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছেন। 

খবরে বলা হয়, ধর্ম পাল্টানোর পর কিরণের নাম হয়েছে আমনা বিবি। যাকে তিনি বিয়ে করেছেন তার নাম মোহাম্মদ আজম। কিরণের বক্তব্য, বছরদেড়েক ধরে তাদের সোশ্যাল মিডিয়ায় আলাপ, নিজের ইচ্ছায় এই বিয়ে ও ধর্মান্তরণের সিদ্ধান্ত বলে তার দাবি।

৫ বছর আগে দুর্ঘটনায় কিরণের স্বামীর মৃত্যু হয়। তার শ্বশুর তারসেম সিংহ আগে গুরুদ্বারে পুরোহিত ছিলেন, পুত্রবধূকে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজকে অনুরোধ করেছেন তিনি। একই অনুরোধ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংহ বাদলকে। তাঁর সন্দেহ, আইএসআইয়ের হাতে পড়েছেন বিধবা পুত্রবধূ।


বিডি-প্রতিদিন/২১ এপ্রিল, ২০১৮/মাহবুব

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow