Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১১ অক্টোবর, ২০১৮ ২২:২৫ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১২ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:১৩
তিতলি'র আঘাতে অন্ধ্রপ্রদেশে ৮ জনের মৃত্যু
দীপক দেবনাথ, কলকাতা
তিতলি'র আঘাতে অন্ধ্রপ্রদেশে ৮ জনের মৃত্যু
সংগৃহীত ছবি

বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’র প্রভাবে লন্ডভন্ড ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ ও ওড়িষ্যার উপকূলবর্তী এলাকা। তিতলি’র প্রভাবে এখনও পর্যন্ত নিহত হয়েছেল আট জন, এরা প্রত্যেকেই অন্ধ্রপ্রদেশের বাসিন্দা। একাধিক জায়গায় উপড়ে পড়েছে গাছ, ভেঙে পড়েছে বিদ্যুতের খুঁটি, কাঁচা বাড়ি। উড়ে গিয়েছে স্টেশনের ছাদ। 

ব্যহত হয়ে পড়েছে বিদ্যুৎ ও টেলিফোন পরিষেবা। সেই সঙ্গে ট্রেন ও বিমান পরিষেবাও ব্যহত। বন্ধ রাখা হয়েছে স্কুল-কলেজ-অফিস। এককথায় জনজীবন পুরোপুরি বিপর্যস্ত। এখনও পর্যন্ত অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীকাকুলাম জেলায় দুই জনের মৃত্যু হয়েছে, অন্যদিকে গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে ছয় মৎসজীবীর। বৃহস্পতিবার অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর অফিস (সিএমও) থেকেই এই খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। তবে নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে শঙ্কা করছে রাজ্য প্রশাসন। 

তুমুল ঝড়ো হাওয়া ও উঁচু ঢেউ নিয়ে তিতলি আছড়ে পড়েছে ওড়িষ্যার গোপালপুর, গঞ্জম, গজপতি, খুরদা, পুরি, কেন্দ্রপারা, ভদ্রক, বালাসার, জগতসিংপুর জেলাগুলিতেও। এই রাজ্যের উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে সকাল থেকে কখনও ঝিরঝিরে আবার কখনও মুষলধারে বর্ষণ হয়ে চলেছে। একাধিক জায়গায় গাছ ও বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে পড়েছে। উড়ে গিয়েছে বহু বাড়ির ছাদ। জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ইতিমধ্যেই রাজ্যটির পাঁচটি উপকূলবর্তী জেলা থেকে তিন লাখ মানুষকে নিরাপদে সরানো হয়েছে। যদিও এখনও পর্যন্ত এরাজ্যে মৃত্যুর কোন খবর নেই। 

তবে স্বস্তিতে নেই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যও। পূজার মুখে বড় বিপর্যয়ের আশঙ্কায় আতঙ্কিত রাজ্যের মানুষ। বুধবার বিকাল থেকে কলকাতা, উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, বর্ধমান জেলার উপকূলবর্তী এলাকায় হালকা বর্ষণ হয়। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই আকাশের মুখ ছিল ভার। বিপর্যয় মোকাবিলার আগাম প্রস্তুতি হিসাবে নবান্নে খোলা হয়েছে কন্ট্রোল রুম। প্রস্তুত রাখা হয়েছে দুর্যোগ মোকাবিলা দলকেও। 

আবহাওয়া দফর সূত্রে খবর ওড়িষ্যা হয়ে পশ্চিমবঙ্গের দিকে ধেয়ে আসবে এই তিতলি। তবে এরাজ্যে আসতে আসতে তিতলির শক্তি অনেকটাই হারাবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা। 

বিডি প্রতিদিন/১১ অক্টোবর ২০১৮/আরাফাত-১৮

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow