Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০৮:২৬ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০৮:৩৮
শ্রীলঙ্কায় পার্লামেন্ট ভাঙার সিদ্ধান্ত সুপ্রিমকোর্টে স্থগিত
অনলাইন ডেস্ক
শ্রীলঙ্কায় পার্লামেন্ট ভাঙার সিদ্ধান্ত সুপ্রিমকোর্টে স্থগিত

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়ে যে আগাম নির্বাচনের সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন, তা স্থগিত করেছে দেশটির সুপ্রিমকোর্ট। 

মঙ্গলবার শীর্ষ আদালত আগামী ৫ জানুয়ারির নির্বাচনী প্রস্তুতি বন্ধ করতে নির্বাচন কমিশনকে নির্দেশ দিয়েছে। 

এর ফলে পার্লামেন্টে প্রেসিডেন্ট সিরিসেনার মনোনীত প্রধানমন্ত্রীর সংখ্যাগরিষ্ঠতা আছে কিনা তা যাচাই করার পথ খুললো। সংখ্যাগরিষ্ঠতার দিক দিয়ে ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী রনিলবিক্রমসিংহ এগিয়ে আছেন বলে ধারণা করা হয়। খবর এনডিটিভির।

প্রধান বিচারপতি নালিন পেরেরার নেতৃত্বাধীন তিন বিচারপতির বেঞ্চ গত শুক্রবার প্রেসিডেন্ট সিরিসেনার জারি করা আদেশ স্থগিত করেছে। সোমবার ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী রনিলবিক্রমসিংহের দল ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টি (ইউএনপি), প্রধান বিরোধী দল তামিল ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স (টিএনএ) এবং বামপন্থি দল পিপলস লিবারেশন ফ্রন্ট (পিএলএফ) একত্রে সুপ্রিম কোর্টে প্রেসিডেন্টের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানায়। আবেদনটি গ্রহণ করে সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিমকোর্ট আদেশ স্থগিত করায় পার্লামেন্ট চলতে আর কোনো বাধা থাকলো না।

ফলে রনিলবিক্রমসিংহ আবারো প্রধানমন্ত্রীত্ব ফিরে পেতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

২২৫ সদস্যের পার্লামেন্টে রনিলবিক্রমসিংহের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। গত ২৬ অক্টোবর প্রেসিডেন্ট সিরিসেনা রনিলবিক্রমসিংহকে বরখাস্ত করে সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসেকে নিয়োগ দিয়েছিলেন। কিন্তু পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবেন না এই আশঙ্কায় প্রেসিডেন্ট পার্লামেন্ট ভেঙে দেন।

বিডি প্রতিদিন/কালাম

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow