Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৭০ জনের মরদেহ উদ্ধার, আরও থাকতে পারে: আইজিপি
প্রকাশ : ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯ ২১:০৪ অনলাইন ভার্সন
ওয়েটার পদে আবেদন ৭ হাজার, বেশির ভাগই স্নাতক
অনলাইন ডেস্ক
ওয়েটার পদে আবেদন ৭ হাজার, বেশির ভাগই স্নাতক
প্রতীকী ছবি

ভারতের একটি সরকারি ক্যান্টিনে খাবার পরিবেশনের জন্য ১৩টি ওয়েটারের পদের জন্য আবেদন পড়েছে ৭ হাজার। এসব আবেদনকারীদের বেশির ভাগই স্নাতক ডিগ্রি পাস।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, শেষ পর্যন্ত ১৩টি পদে ১২ জন স্নাতক এবং একজন উচ্চ মাধ্যমিক পাস করা আবেদনকারীকে নিয়োগ দিতে যাচ্ছে মহারাষ্ট্র সরকার।

মহারাষ্ট্র সরকার জানায়, একটি ক্যান্টিনে সম্প্রতি ১৩টি ওয়েটারের পদ খালি হয়। সেই খালি পদে লোক নিতে বিজ্ঞাপন দেয় সরকার। আবেদনকারীদের যোগ্যতা চতুর্থ শ্রেণি পাস চাওয়া হলেও, প্রায় ৭ হাজার উচ্চ শিক্ষিত বেকার এই পদের জন্য আবেদন করে।

এ জন্য গত বছর ডিসেম্বরে ১০০ নম্বরের একটি লিখিত পরীক্ষাও নেয়া হয়। নিয়োগ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আটজন পুরুষ ও পাঁচজন নারী প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে ক্যান্টিনের ওয়েটার পদে। তার মানে এখন চতুর্থ শ্রেণি পাসের পরিবর্তে ক্যান্টিনের টেবিল পরিস্কার করবেন স্নাতকরা। এই নিয়োগের পর সমালোচনায় মুখে পড়ে ভারত সরকার।

ভারত সরকারের এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করে বিরোধী দল নেতা ধনঞ্জয় মান্ডে বলেন, মন্ত্রী ও আমলাদের লজ্জা হওয়া উচিত। মন্ত্রীদের অনেকের থেকে বেশি শিক্ষিত এই ১৩ জন। তাদের কাছ থেকে পরিষেবা নিতেও তো লজ্জা হওয়া উচিত মন্ত্রী ও আমলাদের। ১৩টি পদের জন্য সাত হাজার আবেদন পত্র জমা পড়েছে। এতেই পরিস্কার ভারতে চাকরির কী অবস্থা। তবে চতুর্থ শ্রেণি পাসের বদলে স্নাতকদের ক্যান্টিনে ওয়েটার পদে নিয়োগের ঘটনা খুবই দুর্ভাগ্যের।

তিনি আরও বলেন, ২০১৮ সালে প্রায় এক কোটি চাকরিজীবী তাদের চাকরি হারিয়েছেন। যাদের মধ্যে ৬৫ লাখ নারী। 

সম্প্রতি মহারাষ্ট্র পুলিশের এক নিয়োগে ৮৫২টি খালি পদের জন্য ১০ লাখ আবেদন জমা পড়ে।

বিডি প্রতিদিন/১৯ জানুয়ারি ২০১৯/আরাফাত

আপনার মন্তব্য

up-arrow