Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২২ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৪:০৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২২ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৪:১৭
যুদ্ধের দিকেই যাচ্ছে ইরান-ইসরায়েল!
অনলাইন ডেস্ক
যুদ্ধের দিকেই যাচ্ছে ইরান-ইসরায়েল!

ইরান-ইসরায়েলের সাম্প্রতিক উত্তেজনায় দেশ দু'টি যুদ্ধের দিকেই যাচ্ছে! ইসরায়েলের সেনাবাহিনী জানিয়েছে যে, তারা সিরিয়ার ইরানি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করা শুরু করেছে। ইসরায়েল ডিফেন্স ফোর্সেস (আইডিএফ) জানিয়েছে, তারা কুদস বাহিনী, যারা ইরানিয়ান রেভুলশনারি গার্ডের এলিট ফোর্স তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছে।  

একদিকে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু  জানিয়েছেন, যারাই ইসরায়েলের ক্ষতি করার চেষ্টা করবে তাদের বিরুদ্ধেই পাল্টা ব্যবস্থা নেয়া হবে। অন্যদিকে যুদ্ধের জন্য ইরান প্রস্তুত বলে জানিয়েছে ইরানের বিমানবাহিনী প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল।

এছাড়া, সিরিয়ায় অবস্থিত ইরানি লক্ষ্যবস্তুগুলোতে রবিবার মধ্যরাত থেকে সোমবার ভোর পর্যন্ত টানা বিমান হামলা চালায় ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী। ইসরায়েলের ওপর হামলায় ইরানকে চরম মূল্য দিতে হবে বলেও সতর্ক করে দিয়েছেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী।  

এদিকে, ইসরায়েলি অভিযানে ইরানি বাহিনী ও সিরিয়ার বিমান বাহিনীর লক্ষ্যবস্তুতে হামলায় রবিবার রাতে ৪ সিরীয় সেনাসহ কমপক্ষে ১১জন নিহত হয়। যদিও সিরিয়ার গণমাধ্যম দাবি করেছে, 'একটি ইসরায়েলি বিমান আক্রমণ' প্রতিহত করেছে সিরিয়া প্রতিরক্ষা বাহিনী। গত রবিবার আইডিএফ জানিয়েছে গোলান হাইটসের ওপর একটি রকেটের পথরোধ করেছে তারা। 

এদিকে, যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানায়, ইসরায়েলি রকেট ‘রাজধানী দামেস্কের নিকটবর্তী’ স্থানে আক্রমণ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা দামেস্কে ব্যাপক বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে বলে জানান। তবে এই আক্রমণের ফলে কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি।

তবে ইসরায়েলিদের ভাষ্য অনুযায়ী ‘গোলান হাইটসের উত্তরাঞ্চলে রকেট হামলা করা হলে তা প্রতিহত করে আয়রন ডোম এরিয়াল ডিফেন্স সিস্টেম’; আর এর পরেই সিরিয়ায় অভিযান শুরু হয়। গোলান হাইটসের জনপ্রিয় শীতকালীন পর্যটন কেন্দ্র মাউন্ট হেরমন সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এর কারণে। 

বিবিসি জানিয়েছে, ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু রবিবার চাঁদ সফরের সময় একটি সতর্কবার্তা জারি করেন; তিনি বলেন, আমাদের একটি নির্দিষ্ট নীতি রয়েছে, সেটি হলো সিরিয়ায় ইরানি স্থাপনায় আঘাত করা এবং যারা আমাদের ক্ষতি করার চেষ্টা করেছে তাদের ক্ষতি করা। 

যদিও সিরিয়ার অভ্যন্তরে আক্রমণ চালানোর বিষয়টি কদাচিৎ স্বীকার করে ইসরায়েল। তবে গত বছরের মে মাসে সিরিয়ার অভ্যন্তরের প্রায় সবকটি সেনাঘাঁটিতে আঘাত করার দাবি করেছিল ইসরায়েল। 

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

আপনার মন্তব্য

up-arrow