Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ৪ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৩ জুন, ২০১৬ ২৩:২৯
জার্মানি থেকে তুর্কি রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার

আর্মেনীয়দের ওপর তুর্কি হত্যাযজ্ঞকে ‘গণহত্যা’ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার প্রতিবাদে জার্মানি থেকে রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করল তুরস্ক। ১৯১৫ সালে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে অটোমান সাম্রাজ্য এই হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল। তবে জার্মানির এই স্বীকৃতিদানকে ‘অজ্ঞতা ও অসম্মানের উদাহরণ’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে তুরস্ক। আর্মেনিয়ার দাবি, ১৯১৫ সালে তাদের ১৫ লাখ মানুষকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছিল। তবে তুরস্ক দাবি করে আসছে, নিহতের সংখ্যা এর চেয়ে অনেক কম ও সেটি কোনো গণহত্যা ছিল না। নির্মূল করার উদ্দেশ্যে একটি সুনির্দিষ্ট জনগোষ্ঠীকে টার্গেট করে হত্যাযজ্ঞ চালালে সেটাকে গণহত্যা বলা হয়। জার্মানির আগে ফ্রান্স, রাশিয়াসহ বিশ্বের প্রায় ২০টি দেশ এবং অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি এ হত্যাযজ্ঞকে গণহত্যার স্বীকৃতি দিয়েছে। এদের মধ্যে পোপ ফ্রান্সিসও রয়েছেন। ১৯১৪ সালে জার্মানি, অস্ট্রিয়া ও হাঙ্গেরির পক্ষ নিয়ে প্রথম বিশ্বযুদ্ধে অংশ নেয় তুর্কি অটোমান সাম্রাজ্য। সেই সময় আর্মেনীয়রা অটোমান সাম্রাজ্যের অধীনে ছিল। যুদ্ধ চলাকালে আর্মেনীয়দের ‘ঘরের শত্রু’ বলে প্রচারণা চালায় অটোমান সাম্রাজ্য। বিবিসি।




up-arrow