Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৫ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৪ জুলাই, ২০১৬ ২৩:২৮
রাহুল গান্ধীর ছুটিতে যাওয়া নিয়ে বিজেপির প্রশ্ন আর টিপ্পনী
নয়াদিল্লি প্রতিনিধি
রাহুল গান্ধীর ছুটিতে যাওয়া নিয়ে বিজেপির প্রশ্ন আর টিপ্পনী

আপাতত রাজনৈতিক করিডরে এটি একদিকে কংগ্রেসের শিরঃপীড়ার কারণ, অন্যদিকে বিজেপি তথা কংগ্রেসবিরোধীদের হাতে একটি চমৎকার অস্ত্রবিশেষ। মাঝেমধ্যেই তিনি উধাও হয়ে যান।

কোথায় গেছেন, কবে ফিরবেন, কেন গেছেন— এসবের কোনো উত্তর তখন থাকে না কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্বের কাছেও। এমনকি লোকসভা চলাকালে গুরুত্বপূর্ণ বিল নিয়ে আলোচনার সময় তার দীর্ঘ অনুপস্থিতি নিয়ে বার বার প্রশ্ন, টীকা-টিপ্পনী তৈরি হলেও শুনতে না পাওয়ার ভান করা ছাড়া গত্যন্তর নেই কংগ্রেস নেতাদের। সম্প্রতি আবারও দেখা গেল সেই রহস্যজনক অন্তর্ধান কাণ্ড। গেল ২০ জুন নিজের ৪৬তম জন্মদিনের ঠিক পরই একটি টুইটের মাধ্যমে দেশবাসীকে টা টা করে চলে গেলেন রাহুল গান্ধী! কোথায় এবং কেন গেলেন, তা যথারীতি গুহ্যই রইল। প্রসঙ্গত, ৩ জুলাই তিনি নিশ্চুপে রাজধানী ফিরে এলেও, এখনো কংগ্রেস নেতাদের কাছে স্পষ্ট নয় যে, রাজনৈতিক ডামাডোলের এই বাজারে এতদিন কোথায় ছিলেন তাদের প্রিয় নেতা। টুইটে রাহুল শুধু লিখেছিলেন, ‘দেশের বাইরে যাচ্ছি অল্প কয়েক দিনের জন্য। যারা গতকাল আমায় শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এবং দেখা করেছেন তাদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। সত্যিই আপনাদের ভালোবাসা পেয়ে আমি ধন্য। ’ ব্যস, তারপর রাজধানীতে জল্পনা শুরু হলেও টানা দুই সপ্তাহ কোনো খোঁজ মেলেনি কংগ্রেসের শীর্ষ এই নেতার।

রাজনৈতিক শিবিরের জোরালো গুঞ্জন, কোথায় যাচ্ছেন তা নিয়ে দলীয় সতীর্থদের বলে না গেলেও, দায়িত্বপ্রাপ্ত নিরাপত্তা কর্মীদের নাকি জানিয়েছিলেন, তিনি ইস্তাম্বুল যাবেন। তাত্পর্যপূর্ণভাবে তার এই ছুটির মেয়াদে ব্রেক্সিট থেকে ঢাকার গুলশান কাণ্ডের মতো দুনিয়া কাঁপানো হরেক বিষয়ে রাহুলের টুঁশব্দ পাওয়া যায়নি। কিন্তু হঠাৎই ইস্তাম্বুল বিমানবন্দরে জঙ্গি হামলার পর গভীর শোক এবং সমবেদনা প্রকাশ করে টুইট করেছিলেন রাহুল তার ‘অজ্ঞাতবাস’ থেকেই। রাজনৈতিক সূত্রের বক্তব্য, দুই আর দুই চার করলে এ সম্ভাবনাই তৈরি হয় যে, ওই টুইটটি করে একান্ত ঘনিষ্ঠদের বার্তা দিতে চেয়েছেন যে, তিনি ঠিক আছেন। তবে তিনি ইস্তাম্বুলেই যান, কি জাপান-কাবুল— দ্বন্দ্ব কিন্তু কাটছে না। অন্যদিকে কংগ্রেসের শিলা দীক্ষিত, জয়রাম রমেশ থেকে বিভিন্ন ছোট-বড় নেতা ক্রমাগত নামতা পড়ার মতো করে বলে চলেছেন রাহুল গান্ধী কংগ্রেস সভাপতি হচ্ছেনই, শুধু কিছু সময়ের অপেক্ষামাত্র।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow