Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৪৯
ব্রেক্সিট আলোচনার প্রস্তুতি তেরেসা মের

ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (ইইউ) ছাড়ার সিদ্ধান্ত কীভাবে বাস্তবায়ন করবে ব্রিটেন, তা নিয়ে ইউরোপের প্রশ্নের শেষ নেই। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে তার ধারণা দিচ্ছেন খুব কমই। তবে তার কৌশল ক্রমেই পরিষ্কার হয়ে আসছে। রয়টার্স একটি প্রতিবেদনে এমনটিই বলেছে।

গত মাসে নিজের পলিস আবাস চেকার্স-এ সম্ভাব্য অবাধ্য একটি মন্ত্রিসভার দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি। প্রথা ভেঙে মন্ত্রিসভার এ  বৈঠক ক্যামেরায় ধারণ করতে গণমাধ্যমকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। ব্রিটেনের অগ্রাধিকার কী হওয়া উচিত তা নিয়ে ব্যাপক মতভেদ রয়েছে মন্ত্রীদের। মাঝে মাঝে এ দ্বিমত প্রকাশ্যে বলতেও দ্বিধাবোধ করেন না তারা। অভিবাসন রোধ, একই সঙ্গে ব্রিটেনের জন্য ভালো শর্তে বাণিজ্য সুবিধা নিশ্চিত করতে একটি ‘অনন্য চুক্তি’র প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে। মের সহযোগীরা ইঙ্গিত দিচ্ছেন, ইইউর লিসবন চুক্তির আর্টিকেল ৫০ তিনি সক্রিয় করবেন ২০১৭ সালের গোড়ার দিকে। আর্টিকেল ৫০ সক্রিয় করলে ইইউর সঙ্গে সমঝোতা করার ২ বছর মেয়াদি কড়া সময়সীমা শুরু হবে। এর আগ পর্যন্ত তেরেসা মের সমালোচকদের কেবল অপেক্ষার প্রহর গুনতে হবে।

up-arrow