Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৪৩
জাতিসংঘের অধিবেশনে প্রাধান্য পাবে সিরীয় সংকট
জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার এটাই শেষ অধিবেশন

আগামী সপ্তাহে নিউইয়র্ক শহরে শুরু হতে যাচ্ছে জাতিসংঘের ৭১তম সাধারণ অধিবেশন। আর এবারের অধিবেশনে সিরীয় সংকট প্রাধান্য পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিশ্বের অধিকাংশ নেতাই ৭১তম অধিবেশনে যোগ দিচ্ছেন। ৫ স্থায়ী সদস্যসহ ১৯৩টি সদস্যরাষ্ট্রের ১৩৫ জন সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধান এবং বেশ কয়েকজন মন্ত্রী অধিবেশনে অংশ নিচ্ছেন। এবারের সাধারণ অধিবেশনটি মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এবং জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুনের জন্য শেষ অধিবেশন। বান কি-মুনের মহাসচিব পদের মেয়াদ শেষ হচ্ছে চলতি বছরের শেষ নাগাদ আর ওবামার প্রেসিডেন্ট পদেও মেয়াদ শেষ হচ্ছে সামনের জানুয়ারিতে। বুধবার বান কি-মুন বলেন, ‘যখন চারদিকে শুধু দুঃখজনক সংবাদ, তখনই শুরু হচ্ছে এই অধিবেশন। সিরিয়ার যুদ্ধের মতো এত বেশি মৃত্যু, ধ্বংসযজ্ঞ এবং বিশাল মাত্রার অস্থিরতা অন্য কোথাও নেই।’ তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্বের শক্তিশালী দেশগুলোকে এখন তাদের প্রভাব কাজে লাগিয়ে একটি রাজনৈতিক সমাধানের উপায় খুঁজে বের করতে হবে।’ রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রসহ ইন্টারন্যাশনাল সিরিয়া সাপোর্ট গ্রুপ (আইএসএসজি)-এর দেশগুলো মঙ্গলবারের সাধারণ অধিবেশনের পাশাপাশি বুধবার নিরাপত্তা পরিষদের সঙ্গেও উচ্চ-পর্যায়ের বৈঠকে বসবে। রাশিয়া চাইছিল যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে হওয়া অস্ত্রবিরতি চুক্তি যেন নিরাপত্তা পরিষদ সমর্থন করে। তবে শুক্রবার রুশ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মার্কিন পক্ষ ওই যুক্তির শর্তাবলী পাঁচ স্থায়ী সদস্যসহ ১৫ সদসের ওই পরিষদের সামনে প্রকাশ করতে চায় না। এদিকে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ রুশ-মার্কিনের মধ্যস্থতায় অস্ত্রবিরতির মেয়াদ আরও ৪৮ ঘণ্টা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। বুধবার মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র মার্ক টোনার জানান, ‘সহিংসতার কথা শোনা গেলেও অস্ত্রচুক্তির ফলে ওই সহিংসতা উল্লেখযোগ্য হারে কমে এসেছে। আলোচনার মধ্যদিয়ে আরও ৪৮ ঘণ্টা অস্ত্রবিরতি কার্যকরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’ টোনার বলেন, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি ও রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের মধ্যে ফোনে আলোচনার পর তারা অস্ত্রবিরতি বাড়ানোর বিষয়ে একমত হয়েছেন। এএফপি।

up-arrow