Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:০০
সংক্ষেপে

আইফেল টাওয়ারের নিচে গণধর্ষণ

ফ্রান্সের বিখ্যাত আইফেল টাওয়ারের নিচে এক কিশোরীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। এ ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে তিন আলজেরীয় যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

ফেসবুকে স্ট্রবেরি খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে ১৫ বছরের ওই কিশোরীকে আইফেল টাওয়ারের নিচে ডেকে আনে অভিযুক্ত তিন আলজেরীয় শরণার্থী নাগরিক। ব্রিটেনের ডেইলি মেইলের এক খবরে বলা হয়, গত সপ্তাহে আইফেল টাওয়ারের নিকটবর্তী চ্যাম্পস দ্য মার্স গার্ডেনে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ তাত্ক্ষণিকভাবে কম্পিউটার ট্র্যাক করে তাদের আটক করে। তারা ঘটনার পরের দিনই জার্মানিতে পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিল।

৪২ তলা থেকে পড়ে...

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে এক ৪২ তলা ভবনের ছাদ থেকে পড়ে একজন স্থপতি প্রাণ হারিয়েছেন। তার নাম ব্রুনো ট্রাভালজার। তিনি নির্মাণ সরঞ্জামাদি পরীক্ষা করে দেখার সময় পড়ে মারা যান। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ছাদের একপাশে তিনি নির্মাণ সরঞ্জামাদি পরীক্ষা করার সময় হাঁটু গেড়ে বসেন। হঠাৎ তার মাথা ঘুরে গেলে তিনি নিচে পড়ে যান।

নিহতের স্ত্রী অ্যালেক্স ট্রাভালজা বলেন, তিনি আর তার স্বামী মিলে ১১ বছর আগে নিউজার্সিতে ক্রাউন আর্কিটেকচারাল সিস্টেম নামে একটি ফার্ম শুরু করেন। তাদের এই প্রতিষ্ঠানটি জানালা তৈরির জন্যে বিশেষায়িত। অ্যালেক্স তার স্বামী ব্রুনোর সম্পর্কে বলেন, ‘তিনি ছিলেন সবচেয়ে সৎ,পরিশ্রমী ও সত্যবাদী মানুষটি। ’ গার্ডিয়ান

বার্সেলোনায় বিস্ফোরণ, নিহত ১

স্পেনের বার্সেলোনা শহরে এক বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। শহরের  কেন্দ্রস্থলের পাশে বড়সড় এই বিস্ফোরণে অন্তত একজন নিহত এবং ১৫ জন আহত হয়েছে। স্থানীয় সময় গতকাল সকাল সাড়ে ৮টায় কাতালান রাজ্যের বার্সেলোনার সমুদ্র তীরবর্তী আবাসিক এলাকা বলে পরিচিত প্রিমিয়া দে মার এলাকার একটি বহুতল ভবনে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর পরই পুলিশ এবং নিরাপত্তারক্ষী বিশেষ বাহিনীর সদস্যরা ওই এলাকা ঘিরে ফেলেন। তবে তাত্ক্ষণিকভাবে এটি বোমা হামলা নাকি গ্যাস দুর্ঘটনা তা জানাতে পারেনি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। এএফপি

দুই হাতির লড়াইয়ে

শ্রীলঙ্কার রত্নপুরা শহরে এক উৎসবের প্রস্তুতির সময় দুই হাতির ঝগড়ার মধ্যে পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন ৬০ বছরের এক নারী। রত্নপুরার এক মন্দিরে বার্ষিক এক উৎসবের মিছিলে অংশ নেওয়ার জন্য হাতি দুটিকে প্রস্তুত করার সময় তাদের মধ্যে লড়াই বেধে যায়। এরপর মন্দির চত্বরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে হুড়োহুড়িতে পদপিষ্ট হয়ে মারা যান ওই নারী। আহত হন বেশ কয়েকজন। স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তারা  জানান, দুই হাতিকে আলাদা করার চেষ্টায় মাহুত ধারালো আকশি দিয়ে হাতিকে খোঁচা মারে। হাতিটি যন্ত্রণায় পালাতে গেলে মন্দির চত্বরে আতঙ্কের পরিবেশ  তৈরি হয়। শ্রীলঙ্কার হিন্দু ও বৌদ্ধ মন্দিরগুলোতে পোষা হাতি রাখার চল অনেকদিনের এবং এসব মন্দিরের পূজাপার্বণে হাতিকে পবিত্র পশু হিসেবে দেখা হয়। বিবিসি

up-arrow