Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:১৮
সিরিয়ায় ত্রাণবহরে হামলা রাশিয়া করেনি : মস্কো
সিরিয়ায় ত্রাণবহরে হামলা রাশিয়া করেনি : মস্কো

সিরিয়ার আলেপ্পো নগরীর কাছে সোমবার ত্রাণবাহী একটি গাড়িবহরে ভয়াবহ বিমান হামলার জন্য রাশিয়াকে দায়ী করেছে যুক্তরাষ্ট্র। হোয়াইট হাউস এ হামলাকে ‘ব্যাপক মানবিক বিপর্যয়’ বলে উল্লেখ করেছে। তবে হামলার কথা অস্বীকার করেছে মস্কো। এদিকে মার্কিন কর্মকর্তারা জানান, রাশিয়ার দুটি যুদ্ধবিমান এ হামলার জন্য দায়ী। রাশিয়া হামলার সঙ্গে তাদের নিজেদের বা সিরিয়ার যুদ্ধবিমানের সংশ্লিষ্টতার কথা তীব্রভাবে নাকচ করে দিয়ে বলেছে, বিমান হামলার কারণে নয়, আগুন লেগে এ ক্ষতি হয়েছে। রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক নারী মুখপাত্র জানান, যুক্তরাষ্ট্রের দাবির পক্ষে কোনো প্রমাণ নেই। তিনি বলেন, ‘আমরা কিছুই করিনি।’ তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলেছেন, উরম আল-কুবরা শহরে যখন ত্রাণবাহী ট্রাকবহরে হামলা হয় তখন রাশিয়ার দুটি এসইউ-২৪ জঙ্গিবিমান আকাশে উড়ছিল। তারা বলেন, সিরিয়ার সেনাবাহিনীও এ হামলা চালাতে পারে। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র বেন রডস বলেন, হয় সিরিয়া সরকার, না হয় রাশিয়া সরকার এর জন্য দায়ী। তিনি বলেন, ‘এ ক্ষেত্রে বিমান হামলার জন্য রাশিয়া সরকার দায়ী বলে আমরা মনে করি।’ এর আগে ত্রাণবাহী ট্রাকবহরে বিমান হামলায় কমপক্ষে ১২ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানায় যুক্তরাষ্ট্র। নিহতদের মধ্যে সিরিয়া আরব রেড ক্রিসেন্টের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও ট্রাকচালক রয়েছেন। সিরিয়ার উরম আল-কুবরা শহরের কাছে ত্রাণবহরে হামলার কথা নিশ্চিত করে জাতিসংঘ। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানায়নি সংস্থাটি। হামলার পর সব ধরনের ত্রাণবাহী যানের বহর পাঠানো বন্ধ করে দেয় জাতিসংঘ। সিরিয়ায় রুশ-মার্কিন উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত অস্ত্রবিরতি শেষ হয়েছে বলে সিরীয় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে ঘোষণা আসার কয়েক ঘণ্টার মাথায় বিমান হামলার ঘটনা ঘটে। জাতিসংঘের এক মুখপাত্র জানান, ৩১টি ট্রাকের মধ্যে কমপক্ষে ১৮টি হামলার শিকার হয়েছে। কমপক্ষে ৭৮ হাজার মানুষের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দিতে ত্রাণ নিয়ে যাচ্ছিল এ ট্রাকগুলো। বিবিসি।

up-arrow