Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:২০
কাশ্মীরে সেনা গাড়ি বহরে গ্রেনেড হামলা
দুই জওয়ানসহ আহত ১০
কলকাতা প্রতিনিধি

ভারতের কাশ্মীরে ফের হামলা চালিয়েছে জঙ্গিরা। হামলায় দুই সেনা জওয়ানসহ আটজন সাধারণ মানুষ আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে তিন নারীও আছেন। গতকাল দুপুরের দিকে দক্ষিণ কাশ্মীরের সোপিয়ান জেলার বনবাজার এলাকায় সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স (সিআরপিএফ)-এর সেনারা যখন টহল দিচ্ছিল সে সময় গ্রেনেড হামলা চালানো হয়। আহত সবাইকে স্থানীয় সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। হামলার পরই জঙ্গিরা গা ঢাকা দেয়। হামলাকারীদের খোঁজে অভিযান শুরু করেছে নিরাপত্তা রক্ষীরা।

এদিকে ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও কাশ্মীরের পাম্পোরের এন্টারপ্রেনারশিপ ডেভলপমেন্ট ইনস্টিটিউট (ইডিআই) কমপ্লেক্সে আত্মগোপন করে থাকা জঙ্গিদের সঙ্গে সেনাবাহিনীর ভারী গোলাবর্ষণ চলছে। সেনা কর্তৃপক্ষের ধারণা ওই বহুতল ভবনে দুই থেকে তিনজন জঙ্গি অবস্থান করছে। সোমবার ভোরের দিকে ওই সরকারি ভবনে ঢুকে পড়ে জঙ্গিরা। সাত তলা ওই ভবনের ভিতরে লুকিয়ে থেকে জঙ্গিরা মাঝেমধ্যেই নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলি চালাচ্ছে। সম্ভবত ঝিলম নদী পার হয়েই জঙ্গিরা এই ভবনটিতে প্রবেশ করে থাকতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

পুলিশ ও নিরাপত্তা রক্ষীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতেই ভবনটিতে প্রবেশ করা মাত্রই মেঝেতে পেতে রাখা বেশ কয়েকটি ম্যাট্রেসে অগ্নিসংযোগ ঘটায়। এরপরই নিরাপত্তা বাহিনী সতর্ক হয়ে যায়। ভবনটিকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। সোমবার সারা রাত ধরেই জঙ্গিদের সঙ্গে সেনাদের গুলি বিনিময় হয়।

গতকাল সকালেও ভবনটি থেকে বিকট বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া গেছে। মনে করা হচ্ছে সেনাবাহিনী ভারী অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়েছে জঙ্গিদের ওপরে। সেনা সূত্রে খবর জঙ্গিদের হত্যা করতে ওই ভবনটিকে ধ্বংস করে দিতে পারে।

যদিও কাশ্মীরে গত কয়েক মাস ধরে চলা অস্থিতিশীল পরিস্থিতির কারণে ওই ট্রেনিং সেন্টারে কোনো ছাত্র ছিল না। ফলে ক্ষয়ক্ষতিরও বড় কোনো সম্ভাবনা নেই।

up-arrow