Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : বুধবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:২৯
আসছে সপ্তাহে ট্রাম্পের নতুন নির্বাহী আদেশ
আসছে সপ্তাহে ট্রাম্পের নতুন নির্বাহী আদেশ

ক্ষমতায় এসেই নির্বাহী আদেশ জারি করে সাতটি মুসলিমপ্রধান দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ নিষিদ্ধ করেন দেশটির নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু তার গোঁয়ার্তুমিকে পাত্তা দেয়নি আদালত।

দেশটির ফেডারেল আদালত সেই নির্বাহী আদেশ বাতিল করে দেয়। তবে ট্রাম্প নাছোড়বান্ধা। আসছে সপ্তাহেই নতুন করে অভিবাসনবিষয়ক সংশোধিত নির্বাহী আদেশ জারি করতে মরিয়া ট্রাম্প। নির্দেশনায় স্বাক্ষরের আগে মন্তব্য করেছেন এই আদেশ ‘জনগণকে সুরক্ষিত’ রাখবে। আবার আদালতের বাধায়ও পড়বে না। বিভিন্ন সূত্রের বরাতে মার্কিন সংবাদ মাধ্যম সিএনএন বলেছে, নতুন এই নির্বাহী আদেশে একটি বিষয় নির্দিষ্ট করা থাকবে, যেটি নিয়ে আগে দ্বিধার সৃষ্টি হয়েছিল। নতুন এ নির্বাহী আদেশে গ্রিন কার্ডধারীরা আক্রান্ত হবেন না। দিন কয়েক আগে মিউনিখ সিকিউরিটি কনফারেন্সে  হোমল্যান্ড সিকিউরিটি মন্ত্রী জন কেলি বলেছেন, ‘প্রেসিডেন্ট প্রথম নির্বাহী আদেশের আরও কড়া ও কার্যকর সংস্করণ প্রণয়নের চিন্তা করছেন। ’ আগের নির্বাহী আদেশটি তাড়াহুড়ো করে করা হয়েছে, এ বিষয়টি স্বীকার করে তিনি বলেন, নতুন নির্বাহী আদেশ কার্যকর হওয়ার আগে এর কিছু অংশ ধীরে ধীরে বাস্তবায়ন করা হবে। নতুন নির্বাহী আদেশে নবম  ফেডারেল আপিল কোর্টের উদ্বেগের বিষয়গুলোও নজর  দেওয়া হবে। এই আপিল কোর্টই পূর্বের আদেশটি বাতিল করেছিল। গত ২৭ জানুয়ারি অভিবাসন সংক্রান্ত এক নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করে ট্রাম্প ইরান, ইরাক, সিরিয়া, সুদান, লিবিয়া, ইয়েমেন ও সোমালিয়ার নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিলেন। সেইসঙ্গে সিরিয়ার শরণার্থীদের দেশটিতে প্রবেশে অনির্দিষ্টকালের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিলেন। এ নির্বাহী আদেশের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তুমুল বিক্ষোভ হয়েছে। কঠোর ভাষায় ট্রাম্পের সমালোচনাও হয়েছে। সিএনএন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow