Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০৬
সাংবাদিকদের নৈশভোজে ট্রাম্পের ‘না’
সাংবাদিকদের নৈশভোজে ট্রাম্পের ‘না’

সাংবাদিকদের ওপর ক্ষোভ কমছেই না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। সাংবাদিকদের ‘ছায়া’র কাছেও ঘেঁষতে চাচ্ছেন না ট্রাম্প।

তাই বহু দিনের পুরনো রীতি ভেঙে এ বছর হোয়াইট হাউসের সংবাদদাতাদের সঙ্গে নৈশভোজ করবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। শনিবার এক টুইটে তিনি এমন বার্তা দিয়েছেন। টুইটে ট্রাম্প বলেন, ‘এ বছর আমি হোয়াইট হাউসের সংবাদদাতাদের সঙ্গে নৈশভোজে অংশ  নেব না। ’ তিনি সবাইকে শুভেচ্ছা জানান এবং নৈশভোজ আনন্দে কাটুক এমন প্রত্যাশা জানান। দুদিন আগে হোয়াইট হাউসে বিখ্যাত সংবাদমাধ্যমের সাংবাদিকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন ট্রাম্প। এ নিয়ে যখন গোটা বিশ্বে তুমুল আলোচনা চলছে, তখনই এ ঘোষণা দিলেন ট্রাম্প। এরমধ্যে শুক্রবার বিবিসি, সিএনএন এবং নিউইয়র্ক টাইমসসহ কয়েকটি নামকরা গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি শন স্পাইসারের সংবাদ সম্মেলনে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। প্রতিবছর বসন্তে হোয়াইট হাউসের সংবাদদাতাদের এই নৈশভোজ অনুষ্ঠিত হয়। এখান থেকেই সাংবাদিকতার বৃত্তির তহবিল জোগান দেওয়া হয়। সাধারণত এই ভোজে প্রেসিডেন্ট, সাংবাদিক, তারকা ও ওয়াশিংটনের অভ্যন্তরীণ সংগঠনের সদস্যরা অংশ নেন। অবশ্য গণমাধ্যমের প্রতি ট্রাম্পের বিদ্বেষপূর্ণ আচরণের প্রতিবাদে বেশ কয়েকটি সংবাদ সংস্থা আগামী ২৯ এপ্রিলের ওই নৈশভোজ প্রত্যাখ্যান করেছে। এর মধ্যেই ট্রাম্প এমন ঘোষণা দিলেন। সংবাদমাধ্যম নিয়ে প্রেসিডেন্টের বিভিন্ন নেতিবাচক মনোভাব ও মন্তব্যের উদাহরণ টেনে হোয়াইট হাউস করেসপনডেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট জেফ ম্যাসন সিএনএনকে বলেন, ট্রাম্পের এমন সিদ্ধান্ত বিস্ময়কর নয়। তিনি সংবাদমাধ্যমকে যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের শত্রু বানিয়ে ফেলেছেন। এদিকে হোয়াইট হাউসে গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের ঢুকতে না দেওয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভে নেমেছেন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিসহ সংবিধান বিশেষজ্ঞরা। শনিবার ম্যানহাটানে নিউইয়র্ক টাইমস অফিসের সামনে অনুষ্ঠিত এক প্রতিবাদ বিক্ষোভে কংগ্রেসওম্যান ক্যারলিন ম্যালনি, সংবিধান বিশেষজ্ঞ ও নাগরিক অধিকার আইনজীবী নরম্যান সাইগেল বক্তব্য দেন। এএফপি, এনআরবি নিউজ।

up-arrow