Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৫ মার্চ, ২০১৭ ২৩:১০
এবার চাঁদে শিপমেন্ট!
এবার চাঁদে শিপমেন্ট!

পুরো বিশ্বকে চমকে দিয়ে মার্কিন নভোচারী নীল আর্মস্ট্রং ও এডউইন অলড্রিন ১৯৬৯ সালের ২০ জুলাই প্রথম চাঁদে পা রাখেন। এ সাফল্যের ওপর ভর করেই বিজ্ঞানীরা সেখানে মানববসতি গড়ার উচ্চাভিলাষী চিন্তাভাবনা করছেন।

এবার এ ভাবনার সঙ্গে শামিল হলেন অনলাইনে বেচাকেনার মাধ্যম আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজস। পৃথিবীর একমাত্র এই উপগ্রহে মানববসতি গড়ার উদ্দেশ্যে প্রয়োজনীয় উপকরণ যাতে সেখানে নিয়ে যাওয়া যায় সেজন্য একটি শিপমেন্ট সার্ভিস (চালান) চালুর প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি। বেজস তার মালিকানাধীন মহাকাশ ভ্রমণ এজেন্সি ‘ব্লু অরিজিন’র মাধ্যমে এ প্রস্তাব দিয়েছেন। তবে এ পরিকল্পনা সফল করতে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার সহযোগিতার কোনো বিকল্প নেই বলে প্রস্তাবে বলা হয়েছে। বেজসের মালিকানাধীন মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট তাদের এক প্রতিবেদনে একথা জানায়।

জেফ বেজসের বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়, চাঁদে কার্যকর মানববসতি গড়তে হলে নির্ভরযোগ্য একটি ‘ডেলিভারি সার্ভিস’ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দৈনিকটির ই-মেইলে পাঠানো প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, ‘আমেরিকার চাঁদে ফিরে যাওয়ার এখনই সময় এবার সেখানে বসবাসের সময়। সেখানে একটি স্থায়ী মানববসতি স্থাপনের উদ্দেশ্য কঠিন হলেও তা মূল্যবান। আমার মনে হয় এ ব্যাপারে অনেকেই খুবই আগ্রহী।

প্রস্তাবটিতে চাঁদে কয়েকটি কার্গো মিশন পাঠানোর কথা বলা হয়েছে। উদ্দেশ্য যাতে করে এসবের মাধ্যমে চাঁদে মানব উপনিবেশ স্থাপনের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি সেখানে বহন করে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়। ওয়াশিংটন পোস্ট

এই পাতার আরো খবর
up-arrow