Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৩৬
যুক্তরাষ্ট্র-ভারত নিরাপত্তা চুক্তি অনিশ্চিত
বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে টু প্লাস টু সম্মেলন
bd-pratidin

আগামী বৃহস্পতিবার ভারতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় ‘টু প্লাস টু’ শীর্ষক সম্মেলন। তবে সেই সম্মেলনে দেশ দুটোর মধ্যে আলোচিত নিরাপত্তা চুক্তিটি স্বাক্ষরিত নাও হতে পারে। ভারতীয় কর্মকর্তারা ‘কমিউনিকেশন কম্প্যাটিবিলিটি অ্যান্ড সিকিউরিটি অ্যাগ্রিমেন্ট’ (কমকাসা) স্বাক্ষরিত হওয়ার বিষয়ে অনিশ্চয়তার কথা জানিয়েছেন। কমকাসা এতদিন ধরে স্বাক্ষরিত না হওয়ার পেছনে ভারতীয়দের ধারণা ছিল মার্কিন এনক্রিপশন প্রযুক্তি ব্যবহার করলে ভারতীয় সেনাবাহিনীর আদান-প্রদান করা গোপন বার্তা যুক্তরাষ্ট্র দেখে ফেলতে পারবে। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম দ্য হিন্দু জানিয়েছে, কমকাসা নিয়ে সংশয় থাকলেও যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে ভারতের মেরিটাইম হেলিকপ্টার ও সশস্ত্র ড্রোন কেনার বিষয়টি প্রায় চূড়ান্ত। এ ছাড়া দেশ দুটি যৌথ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত মহড়া ও প্রতিরক্ষা সরঞ্জামের যৌথ উৎপাদনের বিষয়ে ঘোষণা দিতে পারে সম্মেলনে। সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে যোগ দেবেন দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী জিম ম্যাটিস ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। তারা ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের সঙ্গে আলোচনার টেবিলে বসবেন। কমকাসা স্বাক্ষরিত হওয়ার বিষয়ে তারা আশাবাদী হলেও এখন পর্যন্ত অনিশ্চয়তা রয়ে গেছে। এরকম পরিস্থিতি আগেও ঘটেছে ভারত-যুক্তরাষ্ট্র চুক্তি স্বাক্ষরের বিষয়ে। টু প্লাস টু সম্মেলনে কমকাসা চুক্তি ছাড়াও আরও কিছু চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে। এদের একটি হলো যৌথভাবে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম প্রস্তুতের বিষয়ে। এ বিষয়ে চুক্তি স্বাক্ষরিত হলে যুক্তরাষ্ট্রের ‘ডিফেন্স ইনোভেশন ইউনিট এক্সপেরিমেন্টাল’ (ডিআইইউএক্স) এবং ভারতের ‘ইনোভেশন ফর ডিফেন্স এক্সিলেন্স’ (আইডিএক্স) এক সঙ্গে কাজ করতে পারবে। যুক্তরাষ্ট্রে ‘ডিফেন্স টেকনোলজি অ্যান্ড ট্রেড ইনিশিয়েটিভের’ আওতায় সামরিক সরঞ্জামের যৌথ গবেষণা ও যৌথ উৎপাদনের দিকে যেতে চায়। তবে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন,  সম্মেলনে বড় বিতর্কের বিষয় হয়ে দেখা দেবে সামরিক খাতে রাশিয়ার সঙ্গে ভারতের সহযোগিতামূলক সম্পর্ক। ভারত ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছে, রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকলেও তারা দেশটির কাছ থেকে এস-৪০০ নামের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কিনবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow