Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বুধবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:০৬
এখনো চলছে নিহতদের শনাক্তের কাজ
৯/১১ হামলা
bd-pratidin

যুক্তরাষ্ট্রের টুইন টাওয়ারে ৯/১১ সন্ত্রাসী হামলার ১৭ বছর পেরিয়ে গেলেও এখনও নিহতদের অনেকের পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি। ১৭ বছর পরও নিউ ইয়র্কের একটি ফরেনসিক ল্যাবে দেহাবশেষগুলো শনাক্তে কাজ চলছে। সর্বশেষ একজনের পরিচয় শনাক্ত হয়েছে গত জুলাইয়ে। আর তারও প্রায় এক বছর আগে শনাক্ত হয়েছিল অপর এক ব্যক্তির পরিচয়। ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর মার্কিন ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে এক যোগে চার-চারটি বিমান নিয়ে হামলা চালানো হয়েছিল। নিমেষে ধসে পড়ে ভবন দুটি। ওই হামলায় নিহত হন ২ হাজার ৭৫৩ জন। ঘটনাস্থল থেকে ৭০ হাজার মানুষকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। ওই হামলার ঘটনায় মধ্যে এখন পর্যন্ত মাত্র ১ হাজার ৬৪২ জনকে আনুষ্ঠানিকভাবে শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে। তবে এখনও শনাক্ত করা যায়নি ১ হাজার ১১১ জনকে। হামলার পর খণ্ড খণ্ড অবস্থায় মানুষের ২২ হাজারটি দেহাবশেষ উদ্ধার হয়। আর এসব দেহাবশেষের সবগুলোই এরইমধ্যে ১০ থেকে ১৫ বার করে পরীক্ষা করা হয়েছে। দেহাবশেষগুলোকে গুঁড়া করা হয় এবং সেগুলোকে দুইটি রাসায়নিকে মেশানো হয়। তা ডিএনএকে শুষে নেয়। তবে এ প্রক্রিয়ায় সবসময় সফল হওয়া যাবে তার কোনও নিশ্চয়তা নেই। ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ মার্ক ডেসিরে বলেন, ‘কাজ করার জন্য হাড় সবচেয়ে কঠিন জৈবিক উপাদান। তার ওপর যখন এগুলো ঘটনাস্থলে অবস্থিত কিছু জিনিসের সংস্পর্শে আসে (যেমন-আগুন, ছত্রাক, ব্যাকটেরিয়া, সূর্যালোক, জেট জ্বালানি, ডিজেল জ্বালানি) তখন তাতে ডিএনএ’র নমুনা নষ্ট হয়ে যায়।’ মার্ক ডেসিরে জানান, তবে তারপরও হাল ছাড়েন না ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow