Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:২৪

‘নিউইয়র্ক টাইমস গণশত্রু’

‘নিউইয়র্ক টাইমস গণশত্রু’

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রকাশ্য শত্র“র অভাব নেই। এই তালিকায় রয়েছে তার দেশের প্রধান তদন্ত সংস্থা এফবিআই, গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ। তবে সব কিছুকে ছাড়িয়ে তিনি মাঝেমধ্যেই চরম বিরক্ত প্রকাশ করেন গণমাধ্যমের বিরুদ্ধে। এবার বিশ্বের অন্যতম প্রভাবশালী গণমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকাকে ‘গণশত্রু’ হিসেবে অভিহিত করলেন। গত পরশু সকালে দেওয়া এক টুইটবার্তায় নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনকে ভুল আখ্যায়িত করে তিনি লেখেন, ‘দে আর ট্র– এনেমি অব দ্য পিপল।’ তবে ঠিক কোন প্রতিবেদনে ভুল হয়েছে, এ নিয়ে কোনো কথা বলেননি ট্রাম্প। তবে গণমাধ্যমকে এই শত্র“ আখ্যা দেওয়া এই প্রথম নয় এর আগে ট্রাম্প নিউইয়র্ক টাইমস, সিএনএনসহ অনেক সংবাদমাধ্যমকে ‘ফেক নিউজ’ আখ্যায়িত করে আসছেন। মঙ্গলবার নিউইয়র্ক টাইমস প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, ট্রাম্প গত বছর তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত অ্যাটর্নি জেনারেল ম্যাথিউ ওয়াইটাকারকে আইনজীবী মাইকেল কোহেনের বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য নির্দিষ্ট একজনের নাম প্রস্তাব করে নির্দেশনা দেন। তিনি অ্যাটর্নি জিউফ্রে ব্যারম্যানকে কোহেনের বিরুদ্ধে তদন্ত করার নাম প্রস্তাব করেন। জিউফ্রে ব্যারম্যান নামের এই আইনজীবী ট্রাম্পের নির্বাচনী তহবিলে মোটা অঙ্কের চাঁদা দিয়েছেন। তিনি ট্রাম্পের সমর্থক হিসেবে পরিচিত। যদিও তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত অ্যাটর্নি জেনারেল ম্যাথিউ ওয়াইটাকার ট্রাম্পের এই প্রস্তাবকে পাত্তাই দেননি। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মঙ্গলবার বিকেলেই নিউইয়র্ক টাইমসের এই প্রতিবেদনকে ‘ভুয়া সংবাদ’ বলে উড়িয়ে দেন। নিউইয়র্ক টাইমস

 

 

 


আপনার মন্তব্য