Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

আপডেট : ৭ জুন, ২০১৬ ০৯:৫৮
মশা নিধনে গাছের বিয়ে!
অনলাইন ডেস্ক
মশা নিধনে গাছের বিয়ে!

পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ায় একটি অভিনব ঘটনা ঘটেছে। সেখানকার মানুষ মশার যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ ছিল। আর তাই মশা নিধন করতে বিশ্ব পরিবেশ দিবসে ইউক্যালিপটাস ও নিমগাছের বিবাহ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে এলাকাবাসী। মশার লার্ভা-নাশক বৃক্ষের সংখ্যা বৃদ্ধি করাই এর উদ্দেশ্য। পৌরসভা চত্বরে উলুধ্বনি দিয়ে শঙ্খ বাজিয়ে উপচার সাজিয়ে পুরোহিত ডেকে সেই বিয়ের অনুষ্ঠান হল। শুভদৃষ্টি থেকে শুরু করে মন্ত্র উচ্চারণ বিয়ের রীতি মেনেই সব হয়েছে।

বর্ষায় পানি জমে গেলে গাছের গোড়ায় ডিম পাড়ে মশা। আর তা থেকে বর্ষায় মশার উপদ্রব প্রচণ্ড পরিমাণে বেড়ে যায়। কিন্তু ইউক্যালিপটাস ও নিম গাছে কোনও মশা ডিম পাড়তে পাড়ে না তার ভেষজ গুণের জন্য। ডিম পাড়লেও তা নষ্ট হয়ে যায়। বর্ষায় লার্ভা-নাশক বৃক্ষের সংখ্যা বৃদ্ধি করার উদ্দেশ্যেই পৌরসভার পক্ষ থেকে নেওয়া হয়েছে এই অভিনব উদ্যোগ। তাদের বিশ্বাস এতে মশার বংশবৃদ্ধি কমবে। ইউক্যালিপটাস ও নিমগাছ জীবাণুনাশক বলে এদের মধ্যে নিমগাছকে পাত্র হিসেবে বাছা হয় ও ইউক্যালিপটাসকে কন্যা। এই নিম এবং ইউক্যালিপটাস গাছের জীবাণুনাশক গুণের কারণে মশককুল সেখানে বংশবৃদ্ধি করতে পারে না। এই কারণেই এই প্রতীকী বিয়ের আয়োজন করে হাওড়া পৌরসভার স্বাস্থ্য দফতর।

বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের সমবায়মন্ত্রী অরূপ রায়, হাওড়ার মেয়র ডা. রথীন চক্রবর্তী, স্বাস্থ্য দপ্তরের মেয়র পারিষদ ভাস্কর ভট্টাচার্যসহ পৌরসভার সব মেয়র পারিষদ ও কাউন্সিলাররা। 


বিডি-প্রতিদিন/ ০৭ জুন, ২০১৬/ আফরোজ




আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow