Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২৩ জুলাই, ২০১৬ ১২:২০
আপডেট :
মমতার মন্ত্রিসভায় অর্ধেকই কোটিপতি!
দীপক দেবনাথ, কলকাতা
মমতার মন্ত্রিসভায় অর্ধেকই কোটিপতি!

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় প্রায়ই দাবি করে থাকেন তাঁর দল তৃণমূল কংগ্রেস গরীবদের, খেটে খাওয়া মানুষদের। কিন্তু বাস্তব ছবিটা একটু অন্যরকম! রাজ্য মন্ত্রিসভার অর্ধেকেরও বেশি মন্ত্রী কোটিপতি (মিলিনেয়র)। মমতার মন্ত্রিসভায় সদস্য ৪২ জন এদের মধ্যে অর্ধেক মন্ত্রীদেরই গড় সম্পত্তির পরিমাণ ৩.৩ কোটি।

অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্রেটিক রিফর্মস এবং এই সংস্থার ওয়েস্ট বেঙ্গল ইলেকশন চ্যাপ্টার’এর যৌথ জরিপে এই তথ্যটি সামনে এসেছে। সেই রিপোর্টে ২৪ মন্ত্রী (৫৭ শতাংশ)-এর মন্ত্রীরাই কোটিপতি।

রাজ্যটির শ্রমপ্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেনের মোট সম্পত্তির পরিমাণ ২৮ কোটি রুপি। বিপর্যয় মোকাবিলা মন্ত্রী জাভেদ খানের ১৭ কোটি, অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রের সম্পত্তির পরিমাণ ১১ কোটির কিছু বেশি।

জরিপে বলা হয়েছে ‘মন্ত্রিসভার নয়জনের বিরুদ্ধে অপরাধের অভিযোগ রয়েছে, এর মধ্যে সাত জনের বিরুদ্ধে অপহরণ, খুনের চেষ্টার মতো মারাত্মক অভিযোগ রয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অভিযোগ রয়েছে শ্রম মন্ত্রী মলয় ঘটকের বিরুদ্ধে। একটি চুরি সহ মোট ছয়টি অভিযোগ রয়েছে ঘটকের বিরুদ্ধে।  

জরিপে আরও বলা হয়েছে গত কয়েক মাস আগে রাজ্যটিতে বিধানসভার নির্বাচনী প্রচারণার জন্য বরাদ্দকৃত অর্থের পঞ্চাশ শতাংশ অর্থ খরচ করেন নি ২৯৪ জন নির্বাচিত বিধায়ক (এমএলএ)-এর অর্ধেকের বেশি এমএলএ।  
নির্বাচনী প্রচারণায় যেখানে এক একজন প্রার্থীর ২৮ লাখ রুপি খরচের সীমা নির্ধারণ করা আছে সেখানে গড় খরচের পরিমাণ ১৩.৩৯ লাখ রুপি। শতাংশের হিসাবে যা ৪৮ শতাংশ।  

খরচের তালিকায় সবার ওপরে আছেন কান্দি’র কংগ্রেস প্রার্থী অপূর্ব সরকার। নির্বাচনী প্রচারনার জন্য তিনি খরচ করেছিলেন ২৫.৫২ লাখ রুপি। অন্যদিকে জামুরিয়া বিধানসভা কেন্দ্রের সিপিআইএম প্রার্থী জাহানারা খাম বিধায়ক নিজের কেন্দ্রে প্রচারণার জন্য সবচেয়ে কম খরচ করেছিলেন। বরাদ্দ কৃত অর্থের মধ্যে মাত্র ৩.২৫ লাখ রুপি খরচ করেন তিনি।

 

বিডি-প্রতিদিন/ ২৩ জুলাই, ২০১৬/ আফরোজ 

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow