Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০৪:৫১
সাবধানে পা ফেলতে চান মদন মিত্র
অনলাইন ডেস্ক

সাবধানে পা ফেলতে চান মদন মিত্র

২২ মাসের বন্দিজীবন তাকে অনেক শিক্ষা দিয়েছে! এখন তাই তিনি অনেক সাবধানী। ভবিষ্যতে রাজনীতির ময়দানে থাকলেও মেপে পা ফেলতে চান সারদা কেলেঙ্কারিতে গ্রেফতারের পর সদ্য ছাড়া পাওয়া পশ্চিমবঙ্গের সাবেক মন্ত্রী মদন মিত্র।

আদালতের নির্দেশ মানতে গিয়ে জেল থেকে ছাড়া পেয়েও কাঁসারিপাড়ায় বাড়িতে ফিরতে পারেননি। বাড়ি থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে এলগিন রোডের এক হোটেলের ঘরে বসে প্রাক্তন মন্ত্রী বললেন, ‘‘ছাত্র আন্দোলন দিয়ে রাজনীতির শুরু। চিরকাল খোলামেলা থেকেছি। এই কয়েক মাসে শিখলাম— মেপে, ভেবেচিন্তে পা ফেলতে হয়। ’’

যে সংস্থার আর্থিক কেলেঙ্কারিতে মদত দেওয়ার অভিযোগে প্রায় ২২ মাস জেলে কাটানো, সেই সারদার প্রতারিত আমানতকারীদেরও পাশে থাকতে চান মদন। এদিন তিনি জানান, আমানতকারীদের টাকা ফেরত দেওয়ার দাবিতে কোন আন্দোলনে যদি ডাক পান, তা হলে অবশ্যই হাজির হবেন। তার কথায়, ‘‘আমি চাই, আমানতকারীরা টাকা ফেরত পান। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও সেটাই চেয়েছিলেন। কিন্তু বিরোধীরা সব গুলিয়ে দিয়েছে। ’’

আন্দোলনে সামিল হতে চান ঠিকই, কিন্তু গত ২২ মাস জেলের নিঃসঙ্গতা থেকে যে শিক্ষা পেয়েছেন, তাকে সম্বল করেই আগামী দিনে চলতে চান মদন। উদাস গলায় বলেন, ‘‘প্রথমে মাটিতে ছিলাম। পরে পাহাড়ে উঠেছিলাম। এখন বালুকাবেলায় একা একা হাঁটছি। ’’ তবে কি দলের প্রতি ক্ষোভ জমেছে মনে? প্রশ্ন শুনেই যেন সম্বিৎ ফেরে। ‘‘না, না, তা কেন! দলের আস্থা না থাকলে কি আর আমাকে প্রার্থী করত!’’— সোফায় গা এলিয়ে দিয়ে মুচকি হাসেন মদন।

শনিবার দিনভর দলের নেতারা বিশেষ কেউ আসেননি দেখা করতে। অনুগামীরা অবশ্য দলে দলে ভিড় জমিয়েছিলেন হোটেলে। কেউ ফুল, কেউ মিষ্টি হাতে। সকলকেই হাসিমুখে সময় দিয়েছেন মদন।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

বিডি-প্রতিদিন/১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/মাহবুব

 

 

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow