Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ৬ জুলাই, ২০১৫ ০০:০০ টা আপলোড : ৬ জুলাই, ২০১৫ ০০:০০
**********************

জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের তিন কর্মচারীকে মারধর-হত্যা চেষ্টার অভিযোগে সোনালী ব্যাংক ম্যানেজার, সদর থানার ওসি, ডিবির এক সাব-ইন্সপেক্টর ও সাত পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন সদর আমলি আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এ এস এম তাসকিনুল হক।

গতকাল চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অফিস সহকারী কমল চৌধুরী বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মামলা আমলে নিয়ে বিচারক সদর থানার ওসি রাজিউর রহমান, সোনালী ব্যাংক গাইবান্ধা শাখা ব্যবস্থাপক আয়েশ উদ্দিন, জেলা ডিবি পুুলিশের এসআই রকিব হোসেন, সদর থানার এএসআই আইয়ুব হোসেন ও কনস্টেবল সাদ্দাম হোসেনসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে এই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। বাদী পক্ষের আইনজীবী আনিছুর রহমান জানান, ২ জুলাই গাইবান্ধা চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অফিস সহকারী কমল চৌধুরী, মামুন মিয়া, রেকর্ড কিপার মোজাম্মেল মিয়া ও ক্যাশিয়ার জুয়েল কবির সোনালী ব্যাংক গাইবান্ধা শাখায় বেতনের টাকা উত্তোলন করতে যান। এ সময় টাকা উঠানো নিয়ে ব্যাংকের নিরাপত্তায় নিয়োজিত পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে পুলিশ তাদের ব্যাংক ডাকাতির মামলায় ফাঁসানোর হুমকিসহ অফিস সহকারী মামুনকে বন্দুকের বাঁট দিয়ে হাতে এবং কমল চৌধুরীকে লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করে গুরুতর জখম করেন। এ সময় ব্যবস্থাপকসহ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ পুলিশকে সহায়তা করেন বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।

 

এই পাতার আরো খবর
up-arrow