Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১ অক্টোবর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৩ জুন, ২০১৬ ০০:০৪
এমপির নামে মামলা হয়নি
বাঁশখালীতে নির্বাচন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মিছিল
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

বাঁশখালীতে শারীরিকভাবে নির্যাতিত উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে উল্টো মিছিল-সমাবেশ করেছেন স্থানীয় সরকারদলীয় এমপি মোস্তাফিজুর রহমানের অনুসারীরা। গতকাল সকাল থেকে বাঁশখালী সদরে সংসদ সদস্যের অনুসারী সরকারদলীয় নেতা-কর্মীরা কয়েক দফা মিছিল-সমাবেশ করেছেন। মূলত এমপির ব্যক্তিগত সহকারী ও বাহারছড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে এ মিছিল-সমাবেশ হয়েছে বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, বেলা ১১টার দিকে এমপি মোস্তাফিজুর রহমানের অনুসারী নেতা-কর্মীরা মিছিল করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। মিছিলে নেতৃত্ব দেন তাজুল ইসলাম। মিছিল শেষে নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনেই সমাবেশ করেন তারা। সমাবেশে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলামকে দুর্নীতিবাজ ও বিএনপি-জামায়াতের দোসর উল্লেখ করে তার অপসারণ দাবি করা হয়। প্রসঙ্গত, ব্যক্তিগত সহকারী ও চেয়ারম্যান প্রার্থী তাজুল ইসলামের জন্য নিজের দেওয়া তালিকা অনুযায়ী প্রিসাইডিং অফিসার থেকে সর্বস্তরের ভোট গ্রহণ কর্মকর্তা না পেয়ে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে বুধবার মারধর করেন এমপি মোস্তাফিজ। এরপর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তার কাছ থেকে এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়ে নির্বাচন কমিশন বাঁশখালীতে ৪ জুনের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন স্থগিত করে। এ ছাড়া অভিযুক্ত এমপির বিরুদ্ধে মামলা করারও নির্দেশ দেয় নির্বাচন কমিশন। এদিকে গতকাল বিকাল ৫টা পর্যন্ত কেউ মামলা করেননি বলে জানিয়েছেন বাঁশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন। চট্টগ্রামের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আবদুল ?বাতেন বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের লিখিত আদেশের জন্য অপেক্ষা করছি। ওই আদেশ এলে আমরা মামলা করব।’ এদিকে অনুসারীদের রাস্তায় নামানোর বিষয়ে ?জানতে চাইলে এমপি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘আমি কাউকে মিছিল-সমাবেশ করতে বলিনি। আমি সংবাদ সম্মেলন করতে বলেছিলাম। নগরীতে গিয়ে আমি শিগগিরই সংবাদ সম্মেলন করে প্রকৃত বিষয় তুলে ধরব।’

 




up-arrow