Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ৪ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৩ জুন, ২০১৬ ২৩:৪৪
অষ্টম কলাম
ভালুকের জঙ্গলে জাপানি শিশু
প্রতিদিন ডেস্ক
ভালুকের জঙ্গলে জাপানি শিশু

বারবার বারণ করার পরও গাড়ি থেকে পথচারীদের দিকে পাথর ছুড়ছিল শিশুটি। এতে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হন মা-বাবা। শাস্তি দিতে সাত বছরের ছেলেকে পাহাড়ি পথে গাড়ি থেকে নামিয়ে দেন। শিশুটি চলে যায় পাশের জঙ্গলে। সেখানে আবার ভালুকের বসতি। এরপর থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না তাকে। খবর এএফপির।

এক সপ্তাহ ধরে খোঁজখবর চলে। গতকাল বহালতবিয়তেই জাপানের উত্তরাঞ্চলের ওই জঙ্গলে পাওয়া যায় ইয়ামাতো      তানুকাকে। তার শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন ছিল না। স্বাস্থ্যও ভালো ছিল। সেনাবাহিনীর একটি ঘাঁটির কাছেই হাঁটাহাঁটি করছিল সে। তানুকা জানায়, সেনাঘাঁটির কাছে একটি ঘরে আশ্রয় নিয়েছিল সে। সেখানে একটি পানির কল ছিল। সেখান থেকে পানি পান করত। জাপানের উত্তরাঞ্চলের হোক্কাইদো দ্বীপের পুলিশের মুখপাত্র তমোহিতো তামুরা বলেন, খবর দেওয়ার পর শিশুটির মা-বাবা এসে দেখা করেছেন। তানুকাকে ফিরে পেয়ে তারা খুবই খুশি। সেলফ ডিফেন্স ফোর্সের মুখপাত্র মানাবু তাকেহারা বলেন, তানুকাকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য হেলিকপ্টারে করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গত শনিবার যে জায়গা থেকে তানুকা হারিয়ে যায় সেখান থেকে পাঁচ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে তাকে খুঁজে পাওয়া যায়। সেলফ ডিফেন্স  ফোর্সের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সেনা স্থানীয় গণমাধ্যমকে জানান, জঙ্গলের ভিতরে সেনাবাহিনীর দুটি ঘর রয়েছে। তার কাছে একটি ঘরে তানুকাকে পাওয়া যায়। দেখামাত্র তানুকা কিছু খেতে চায়। কারণ, সে খুব ক্ষুধার্ত ছিল। নিজের নামও বলে সে। প্রথমে শিশুটির মা-বাবা পুলিশের কাছে সত্য গোপন করেন। বলেন, তারা জঙ্গলের পাশে বুনো সবজি তুলতে নেমেছিলেন। এরপর তানুকা হারিয়ে গেছে। পরে পুলিশকে জানান, শাস্তি দিতে শিশুটিকে গাড়ি থেকে নামিয়ে দিয়েছিলেন। মা-বাবার এমন নিষ্ঠুর আচরণের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ জাপানের স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোতে কঠোর সমালোচনা হয়। তানুকার জন্য উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে জাপানবাসী। তাকে খুঁজে পাওয়ার পর তাই চেনা-অচেনা সবাই আনন্দিত। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারসহ বিভিন্ন মাধ্যমে তানুকাকে নিয়েই যত আলোচনা। টুইটারে দেওয়া বার্তায় একজন লেখেন, ‘ওহ, শিশুটিকে খুঁজে পাওয়া  গেছে।’ কীভাবে সাত দিন জঙ্গলে একা বেঁচেছিল শিশুটি তা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেন আরেক টুইটার ব্যবহারকারী। পুরো এক সপ্তাহ জঙ্গলে তানুকার খোঁজ চলেছে। প্রথমে পুলিশ তাকে  খোঁজে। পরে জাপানি সেনারাও যোগ দেয়। ভারি বৃষ্টির জন্য উদ্ধার কাজ ব্যাহত হয়। তবে শেষ পর্যন্ত যখন তানুকাকে পাওয়া গেল, তখন সবাই দারুণ খুশি। ভুল বুঝতে পেরেছেন তানুকার মা-বাবাও। জাপানের গণমাধ্যমে প্রচারিত এক অনুষ্ঠানে এ রকম আচরণ করায় সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন তানুকার বাবা।




up-arrow