Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ৬ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৬ জুন, ২০১৬ ০০:০১
বাগেরহাটে আওয়ামী লীগের সংঘর্ষ, নিহত ২
বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের ফকিরহাটে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে হাফিজুর রহমান সরদার (২৬) ও ইমরান খান (১৮) নামে স্থানীয় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের দুই কর্মী নিহত হয়েছেন। এ সময় খলিল ও আলতাফ নামে আরও দুজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

আহতদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নিহত হাফিজ আড়ুয়াডাঙ্গা গ্রামের আতিয়ার সরদারের ছেলে ফকিরহাট উপজেলার নলধা-মৌভোগ ইউনিয়নের যুবলীগ কর্মী ও ফকিরহাট কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী ইমরান খান একই গ্রামের খলিল খানের ছেলে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, গতকাল দুপুরে উপজেলার  নলধা-মৌভোগ ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা সরদার আলতাফ হোসেনকে (৩৫) একই এলাকার আওয়ামী লীগের আবুল হোসেন গ্রুপের লোকজন কুপিয়ে জখম করে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে আলতাফ হোসেনের লোকজন ওই হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে যুবলীগ কর্মী হাফিজুর রহমান সরদারের বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। এ সময় বাধা দিলে হাফিজুর রহমান সরদার, খলিল এবং ইমরানকে কুপিয়ে, পিটিয়ে ও হাত-পায়ের রগ কেটে গুরুতর আহত করা হয়। এ সময় ১০টি বাড়িঘরে ভাঙচুর চালানো হয়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে ফকিরহাট হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা হাফিজুর সরদারকে মৃত ঘোষণা করেন। অপর আহত দুজনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে ছাত্রলীগ কর্মী ইমরান খান সন্ধ্যায় মারা যান। ফকিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বজলুর রহমান জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে দুজন নিহত ও দুজন আহত হয়েছেন। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে।

up-arrow