Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৬ জুন, ২০১৬ ২৩:৪২
ভোট না দেওয়ায় গণধর্ষণ!
ইউপিতে সহিংসতায় আড়াইহাজারে একজনের মৃত্যু
নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর

প্রতিপক্ষকে ভোট দেওয়ার অপরাধে এক গৃহবধূ সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার দিবাগত গভীর রাতে শার্শা উপজেলার গোগা ইউনিয়নের আমলাই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

কথিত ধর্ষিতাকে গতকাল দুপুরে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আক্রান্ত গৃহবধূ ও তার স্বামী জানান, গত ৪ জুন অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তারা বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী সরোয়ার হোসেনকে ধানের শীষ মার্কায় ভোট দেন। এ কারণে সেদিনই তাদের ওপর হামলার চেষ্টা হয়। ভয়ে তারা বাড়ি না গিয়ে পালিয়ে থাকেন। রবিবার সন্ধ্যায় তারা বাড়ি ফেরেন। রাতে তাদের ওপর চড়াও হয় স্থানীয় মেম্বার শামসুজ্জামান বুলুর শাগরেদ সেকেন্দার, সবুজ, জাহাঙ্গীর, কায়ছেদসহ ৭/৮ জন। নির্যাতনের শিকার ওই নারী বলেন, দুর্বৃত্তরা তার স্বামীকে মারধর করে বাড়ি থেকে হটিয়ে দিয়ে তাকে রাত ২টার দিকে বাড়ির পাশে একটি পাটক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। গোগা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করা বিএনপির সরোয়ার হোসেন বলেন, ভোটের দিন বুথে ঢুকে নৌকার সমর্থক আওয়ামী লীগ কর্মী শামসুজ্জামান বুলুর লোকজন ওই গৃহবধূর সিল দেওয়া ব্যালট পেপার দেখে ফেলে। তারা সেসময়ই তাদের দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। এ ঘটনার পর থেকেই ওই পরিবারের লোকজন বাড়িছাড়া ছিল। সোমবার বেলা ১১টার দিকে নির্যাতনের ঘটনা শোনার পর তিনি ওই নারীকে হাসপাতালে ভর্তি করান। এ ব্যাপারে তারা মামলা করবেন বলেও জানান সরোয়ার হোসেন।   যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. ইউসুফ আলী বলেন, ভিকটিম বলছেন ধস্তাধস্তি হয়েছে। ধর্ষণের শিকার হওয়ার কথা বলছে না। অনেক সময় মেয়েরা বিষয়টি চেপে যায়। তারপরও আমরা বিষয়টি পুলিশকে জানিয়েছি এবং পরীক্ষা-নিরীক্ষার যেসব বিষয় রয়েছে সেগুলোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এগুলো সম্পন্ন হওয়ার পরই বলা যাবে যে তিনি ধর্ষণের শিকার হয়েছেন কিনা।

আড়াইহাজারে একজনের মৃত্যু : নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে নির্বাচনী সংঘর্ষে আহত যুবক মনির হোসেন (৩৪) মারা গেছেন। রাজধানীর ধানমন্ডি কিডনি হাসপাতালে গতকাল তার মৃত্যু হয়। মনির উপজেলার খাগকান্দা ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুরার করিমের ছেলে। আড়াইহাজার থানার ওসি জানান, পঞ্চম দফায় ২৮ মে ভোট চলাকালে খাগকান্দা ইউনিয়নের সম্ভুপুরা কেন্দ্রে সদস্য প্রার্থী মোতালেব ও জাকিরের লোকদের সংঘর্ষ হয়। এতে আহত হন মনিরসহ ১০ জন। মনিরকে ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে সোমবার মারা যান। এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

হবিগঞ্জ : সদর উপজেলার পৈল ইউনিয়নে বিজয়ী ও বিজিত চেয়ারম্যান সমর্থকদের সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত ৫০ জনকে ভর্তি করা হয়েছে সদর হাসপাতালে। পুলিশ ও স্থানীয়া জানান, ষষ্ঠ ধাপের নির্বাচনে পরাজিত আওয়ামী লীগ প্রার্থী সাহেব আলী ও তার সমর্থকরা নবনির্বাচিত (স্বতন্ত্র) চেয়ারম্যান সৈয়দ মঈনুল হক আরিফের লোকজনের বাড়িঘরে গতকাল দফায় দফায় হামলা, ভাঙচুর চালায়। একপার্যায়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকরা চড়াও হলে সংঘর্ষ বাধে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ৩০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে। এদিকে চুনারুঘাটে রবিবার রাতে বিএনপি প্রার্থীর বিজয় মিছিলে নৌকা সমর্থকদের হামলায় স্কুলছাত্র নিহতের ঘটনায় বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা হয়েছে। শ্রীকুটা এলাকায় হবিগঞ্জ-ঢাকা পুরাতন সড়কে গতকালের এই সভায় জড়িতদের গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়।

পাবনা : সদর উপজেলার হেমায়েতপুর ও দোগাছি ইউনিয়নে সংঘর্ষ ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও গুলি বিনিময় হয়েছে। গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক ব্যক্তি। তাদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সদর থানার ওসি জানান, হেমায়েতপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে পরাজিত সদস্য প্রার্থী বকুল সরদার ও আফজাল প্রামাণিকের সমর্থকদের রবিবার থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। গতকাল আবারও তারা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় গুলিবিনিময়ের ঘটনাও ঘটে। ভাঙচুর করা হয় ৫০টি বাড়িঘর। অপরদিকে রবিবার রাতে দোগাছি ইউনিয়নে পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী আলতাব হোসেন ও শামসুল আলমের সমর্থকদের সংঘর্ষ, বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে।

নড়াইল : লোহাগড়া উপজেলার নোয়াগ্রাম ইউনিয়নে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার জেরে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম কালুকে গতকাল দুপুরে আটক করেছে পুলিশ। এ দিন সকালে নোয়াগ্রামের কলাগাছি বাজারে আওয়ামী লীগের পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর বিদ্রোহী প্রার্থী নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলামের সমর্থকেরা হামলা করে। এতে আহত হন ১২ নেতা-কর্মী। তাদের লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও খুলনা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে।

বেনাপোল : যশোরের শার্শার কায়বা ও পুটখালী ইউনিয়নে ষষ্ঠ দফা নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় ৪০টি ঘরবাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। কয়েকটি স্থানে ঘটে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা। আতঙ্কে পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে দাদখালী ও বারপোতা গ্রাম। জানা যায়, নির্বাচনের পর নৌকা সমর্থকরা বিদ্রোহী প্রার্থীর লোকজনের বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর চালায়। এতে আহত হন দাদখালী গ্রামের আছিয়া ও কালু। এদিকে বারপোতায় বিজিত বিদ্রোহী প্রার্থীর লোকজনের হামলায় আহত হয়েছেন একজন।

ফরিদপুর : নগরকান্দায় সহিংসতার চেষ্টা ও উসকানি দেওয়ার অপরাধে রবিবার ১১ জনকে গ্রেফতার করা হয়। রাতে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে প্রত্যেককে দেওয়া হয় এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড। সাজাপ্রাপ্তরা হলেন— মামুন, হবি, সিদ্দিক, দুলাল, হাচান, হেলাল, সাহেদ, জুয়েল, কায়েম, রাকিব ও দুলু।

নরসিংদী : পঞ্চম দফা নির্বাচন ঘিরে গত বুধবার রায়পুরার নীলক্ষা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিজয়ী প্রার্থী তাজুল ইসলাম ও পরাজিত (বিদ্রোহী) আবদুল হকের সমর্থকদের সংঘর্ষের পর থেকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিল। ওই সংঘর্ষে একজন ও আহত হয়েছিলেন ৩০ জন। গতকাল আবারও দুই পক্ষ সংঘর্ষের প্রস্তুতি নেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ছত্রভঙ্গ করতে চাইলে গ্রামবাসী পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এতে আহত হন তিন কনস্টেবল। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

গাইবান্ধা : ফুলছড়ি সদর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ প্রার্থীর (পরাজিত) সমর্থকরা উপজেলা পরিষদের কয়েকটি অফিসের দরজা-জানালা ভাঙচুর করে। পরে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমানের কার্যালয়েও হামলা চালায়। ইউনিয়নের ফুলছড়ি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোট পুনঃগণনার দাবিতে গতকাল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শনকালে তারা এ হামলা-ভাঙচুর করে।

up-arrow