Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৬ জুন, ২০১৬ ২৩:৪৯
মদিনা শরিফে প্রধানমন্ত্রী
বাংলাদেশ থেকে পাঁচ লাখ শ্রমিক নেবে সৌদি আরব
প্রতিদিন ডেস্ক

সৌদি আরব বাংলাদেশ থেকে আরও পাঁচ লাখ শ্রমিক নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। সৌদি শ্রমমন্ত্রী ড. মুফরেজ বিন সাদ আল হাকবানি রবিবার রাতে রয়্যাল কনফারেন্স প্যালেসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাতে এসে এই আগ্রহের কথা জানান। তিনি এ সম্পর্কে বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশ থেকে আরও পাঁচ লাখ জনশক্তি নিতে আগ্রহী।’ প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বৈঠকের পর এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের অবহিত করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাদশা সালমান বিন আবদুল   আজিজ আল সৌদের আমন্ত্রণে পাঁচ দিনের সরকারি সফরে সৌদি আরব অবস্থান  করছেন। খবর বাসসের। সৌদি মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশি শ্রমিকরা এখানে সুনামের সঙ্গে কর্মরত রয়েছেন। এ ছাড়া প্রায় ৪২ হাজার নারীশ্রমিক গৃহকর্মে নিয়োজিত রয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সৌদি শ্রমমন্ত্রী ড. মুফরেজ জনশক্তি নিয়োগের ক্ষেত্রে ব্যয় সংকোচনের জন্য মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ম্য বন্ধে একমত হন। সৌদি শ্রমমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক ছাড়াও চিকিৎসক, শিক্ষক ও প্রকৌশলীদের নিয়োগ উন্মুক্ত করে দেওয়ার লক্ষ্যও আমাদের রয়েছে।’ সৌদি আরবে মহিলা গৃহকর্মী নিয়োগের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তার সরকার এসব গৃহকর্মীকে স্বল্পকালীন প্রশিক্ষণের পরই বিদেশে পাঠানোর উদ্যোগ নিচ্ছে এবং এই প্রশিক্ষণের মেয়াদ ভবিষ্যতে আরও বাড়ানো হতে পারে। অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়া সহজতর করার বিষয়েও প্রধানমন্ত্রী তার সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের তথ্য এ সময় তুলে ধরেন। শেখ হাসিনা জনশক্তি নিয়োগের ক্ষেত্রে সৌদি শ্রমমন্ত্রীকে কড়াকড়ি আরোপের বিষয়ে গুরুত্ব আরোপ করে বলেন, ‘কোনো দালালশ্রেণি যেন এই প্রক্রিয়ার মধ্যে ঢুকতে না পারে বিষয়টি খেয়াল রাখবেন।’ এর উত্তরে ড. মুফরেজ বলেন, ‘শ্রমিকদের সুরক্ষা দেওয়া আমাদের কর্তব্যের মধ্যেই পড়ে।’ পরে রয়্যাল কোর্ট অ্যাডভাইজার ইয়াসির আল রুমায়ন একই স্থানে বাংলাদেশের প্রধামন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন। বৈঠকে বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সৌদি আরবের আরও বিনিয়োগ প্রত্যাশা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সৌদি আরব বাংলাদেশের কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পসহ রাজধানীর চারপাশে চক্রাকারে সড়কপথ, রেলপথ ও নৌপথ তৈরি প্রকল্পেও বিনিয়োগ করতে পারে। শেখ হাসিনা বাংলাদেশ ও সৌদি আরব দুই পক্ষেরই সুবিধার জন্য ‘যৌথ অর্থনৈতিক কমিশন’ আরও শক্তিশালী করার বিষয়ে পরামর্শ দেন।

মদিনা শরিফে প্রধানমন্ত্রী : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জেদ্দা থেকে গতকাল সকালে পবিত্র নগরী মদিনায় পৌঁছেছেন। পাঁচ দিনের সরকারি সফরে বর্তমানে তিনি সৌদি আরবে অবস্থান করছেন। খবর বাসস’র। মদিনার গভর্নর যুবরাজ ফয়সাল বিন সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ স্থানীয় সময় সকাল ১১টা ২০ মিনিটে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন আবদুল আজিজ বিমানবন্দরের রয়েল লাউঞ্জে প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানান। প্রধানমন্ত্রী বিমানবন্দরে পৌঁছার পর একটি মোটর শোভাযাত্রাসহ তাকে মদিনা হিলটনে নিয়ে যাওয়া হয়। মদিনা অবস্থানকালে প্রধানমন্ত্রী মদিনা হিলটনেই থাকবেন।




up-arrow