Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ৮ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৭ জুন, ২০১৬ ২৩:২৮
তেল চুরির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে খুন, আটক ৪
নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর
তেল চুরির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে খুন, আটক ৪

তেল চুরির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে কোন্দলকে কেন্দ্র করে যশোরে ফিলিং স্টেশনে জোড়া খুনের ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। বাঘারপাড়ায় আবদুল বারী ফিলিং স্টেশনের ওই ঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন— ফিলিং স্টেশনের নজেলম্যান (যানবাহনে তেল বিক্রিতে সহায়তাকারী) সিরাজুল ইসলাম, ইকবাল, নয়ন ও নাসির।

জানা যায়, সিরাজুলকে সোমবার দিবাগত গভীর রাতে সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জোড়া খুনের দায় স্বীকার করেন। পরে পুলিশ তাকে নিয়ে ঘটনাস্থলে গেলে সেখানে ঘটনার বর্ণনা দেন এবং হত্যায় ব্যবহৃত একটি কুড়াল পার্শ্ববর্তী জঙ্গলে লুকিয়ে রাখার কথা জানান। ইকবাল, নয়ন ও নাসির নামে তিনজন হত্যাকাণ্ডে তাকে সহযোগিতা করে বলেও জানান সিরাজুল। পরে ওই তিনজনকে পুলিশ আটক করে। যশোরের পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান বলেন, পেট্রল পাম্পের তেল চুরির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে শত্রুতা আর গাঁজা সেবনে বাধা দেওয়ার কারণেই ম্যানেজার ওবায়দুর রহমানকে হত্যার সিদ্ধান্ত নেয় সিরাজুলসহ চারজন। জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায়, কলেজছাত্র অপু পরিস্থিতির শিকার। পুলিশ সুপার জানান, সিরাজুল পুলিশকে বলেছেন— তিনি প্রতিদিন পাম্প থেকে তেল চুরি করতেন। দিন শেষে ওই তেল বিক্রির টাকার ৮০ ভাগ ম্যানেজার নিয়ে নিতেন। তাকে দেওয়া হতো মাত্র ২০ ভাগ। এ নিয়ে ক্ষুব্ধ ছিলেন সিরাজুল। এ ছাড়া সিরাজুলের বন্ধু ইকবাল, নয়ন ও নাসির ফিলিং স্টেশনে গাঁজা সেবন করতেন। এতে ম্যানেজার বাধা দিতেন। উল্লেখ, গত রবিবার রাতে বাঘারপাড়ার আবদুল বারী ফিলিং স্টেশনের একটি কক্ষ থেকে ম্যানেজার ওবায়দুর রহমান ও যশোর এমএম কলেজের ছাত্র লিজন আহমেদ অপুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বাড়িতে নির্মাণকাজ চলায় পাশের ফিলিং স্টেশনটিতে ঘুমিয়ে ছিলেন অপু।




up-arrow