Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ৮ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৭ জুন, ২০১৬ ২৩:৩১
ঢাকা নগর আওয়ামী লীগের কমিটি জুলাইয়ে
বাদল নূর

সম্মেলনের পর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর ও দক্ষিণের শীর্ষ নেতাদের নাম ঘোষণায় উজ্জীবিত নেতা-কর্মীরা। চাঙ্গা হয়ে উঠছে মাঠপর্যায়ের সাংগঠনিক কার্যক্রম। তৃণমূল নেতা-কর্মীরা এখন তাকিয়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটির দিকে। একইভাবে থানা, ওয়ার্ড এবং ইউনিয়ন কমিটির নামও ঘোষণা চান তারা। আগামী ১০-১১ জুলাই আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সম্মেলনের পর প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর ও দক্ষিণের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে বলে দলের নির্ভরযোগ্য একটি সূত্রে জানা গেছে। ২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর সর্বশেষ সম্মেলন হয় ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের। এরপর শুরু হয় নগরীর ৪৯টি থানা, ১০৩টি ওয়ার্ড, ১৭টি ইউনিয়নের সম্মেলন। সম্মেলন শেষ হলেও নগর নেতাদের দ্বন্দ্বে দীর্ঘদিন ধরে কমিটি ঘোষণা করা হয়নি। এর আগে ২০০৩ সালের ১৮ জুন সম্মেলন হয় নগর আওয়ামী লীগের। এ সম্মেলনের দীর্ঘ ৯ বছর পর সম্মেলন হয় মহানগর আওয়ামী লীগের। সম্প্রতি মহানগর আওয়ামী লীগের দক্ষিণের সভাপতি আবুল হাসনাত ও সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ এবং উত্তরে এ কে এম রহমত উল্লাহ সভাপতি এবং মো. সাদেক খানকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়। এরপরই মাঠপর্যায়ের নেতা-কর্মীদের দৌড়ঝাঁপ বেড়ে যায়। থানা ও ওয়ার্ড কার্যালয়গুলোও এখন জমজমাট। কমিটিতে স্থান পেতে বসে নেই তৃণমূল নেতারা। মহানগরের প্রভাবশালী নেতাদের বাসাবাড়িতেও ধরনা দিচ্ছেন তারা। কমিটি প্রসঙ্গে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘কমিটি ঘোষণা করার পর নেতা-কর্মীরা উজ্জীবিত এটা বোঝা যাচ্ছে। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে নগর আওয়ামী লীগকে আরও শক্তিশালী এবং গতিশীল করার লক্ষ্যে প্রতিটি নেতা-কর্মীকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। অবশিষ্ট কমিটিও যথাসময়ে ঘোষণা করা হবে।’ মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক মো. সাদেক খান বলেন, ‘কমিটি ঘোষণা হওয়ার পর নেতা-কর্মীরা স্বতঃস্ফুর্তভাবে দলীয় কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছে। দলকে সুসংগঠিত এবং শক্তিশালী করতে নেতা-কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করে যাচ্ছে।’ সূত্রমতে, মহানগরের প্রভাবশালী নেতা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, হাজী মো. সেলিম, সাঈদ খোকন ও শাহে আলম মুরাদ পূর্ণাঙ্গ কমিটির খসড়া তালিকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে জমা দিয়েছেন। তিনি কমিটি যাচাই-বাছাই করছেন। আওয়ামী লীগের কাউন্সিলের পর পরই মহানগরের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা দিতে পারেন বলে দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানায়।




up-arrow