Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ৮ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৭ জুন, ২০১৬ ২৩:৩৩
জঙ্গিদের অস্তিত্ব ধ্বংস না হয়ে পুষ্টি লাভ করছে
-------------------------------- মির্জা ফখরুল
নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, জঙ্গিরা দেশের মধ্যেই একের পর এক অভয়ারণ্য তৈরি করে যাচ্ছে। তাদের অস্তিত্ব ধ্বংস না হয়ে বরং আরও বেশি পুষ্টি লাভ করছে।

সরকারের নিষ্ক্রিয়তায় জঙ্গিবাদী উগ্রপন্থিরা মনে হয় দেশের কর্তৃত্ব গ্রহণ করেছে। গতকাল দুর্বৃত্তদের হামলায় ঝিনাইদহে সনাতন ধর্মাবলম্বী পুরোহিত আনন্দ গোপাল গাঙ্গুলীকে হত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা  ফখরুল অভিযোগ করেন, দেশব্যাপী চলছে বেছে বেছে হত্যাকাণ্ড। আর এ হত্যাকাণ্ডের শিকার হচ্ছেন ভিন্নমতাবলম্বী, ব্লগার, ধর্মগুরু, পুরোহিত, যাজক, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, বিদেশি নাগরিক, মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন, পীর ও পীরের শিষ্য, প্রকাশক, পুলিশ সদস্য ও তাদের পরিবার। তিনি বলেন, চট্টগ্রামে পুলিশ সুপারের স্ত্রীকে হত্যা ঘৃণ্য ও কাপুরুষোচিত অমানবিক কাজ। নাটোরের খ্রিস্টান মুদি দোকানি সুনীল গোমেজকে হত্যা নজিরবিহীন নৃশংসতা। এরই ধারাবাহিকতায় ঝিনাইদহের করাতিপাড়ায় পুরোহিত আনন্দ গোপাল গাঙ্গুলীকে পৈশাচিকভাবে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

বিএনপির এই নেতা বলেন, প্রায় প্রতিদিনই দেশের কোনো না কোনো স্থানে আক্রমণের শিকার হচ্ছেন কেউ না কেউ। মানুষ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। দেশের মানুষের নিরাপত্তাহীনতায় ভ্রুক্ষেপ না করে সরকারের মন্ত্রী ও  নেতারা  তোতাপাখির মতো বুলি আওড়িয়ে যাচ্ছেন, দেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি আশাব্যঞ্জক, দেশে কোনো জঙ্গিবাদ নেই। কোনো কোনো মন্ত্রী-নেতারা বলেন, দেশে জঙ্গি নেই, এ শব্দটি নাকি বায়বীয়। সংঘটিত হত্যাকাণ্ডগুলোর পর সরকারদলীয়  নেতা, মন্ত্রী ও সংসদ সদস্যদের পরস্পরবিরোধী বক্তব্য এবং বিরোধী দলের ওপর দায় চাপানোয় জঙ্গিরা আরও উৎসাহিত হচ্ছে। মির্জা ফখরুল বলেন, বিদ্যমান পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের আদৌ কোনো ইচ্ছা সরকারের আছে কি না, তা নিয়ে জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। কারণ, জঙ্গিবাদ দমনে সরকার এখন পর্যন্ত কোনো বিশ্বাসযোগ্য অগ্রগতি সাধন করতে পারেনি। এদের নিয়ন্ত্রণে সরকারের ব্যর্থতা সবার মধ্যেই আতঙ্ক ও ভীতি ক্রমাগতভাবে বিস্তার লাভ করছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow