Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ১২ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ জুন, ২০১৬ ২৩:০৯
স্বপ্নের আইকনিক টাওয়ার গড়বে যুক্তরাষ্ট্রের কেপিসি গ্রুপ
চুক্তি সই আজ
রুকনুজ্জামান অঞ্জন

পূর্বাচলে ১৪২ তলাবিশিষ্ট স্বপ্নের আইকনিক টাওয়ার নির্মাণের কাজ পাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক নির্মাণ প্রতিষ্ঠান কেপিসি গ্রুপ। এরই মধ্যে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে সরকারের চুক্তির বিষয়টি চূড়ান্ত হয়েছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আজ বিকালে সরকার ও নির্মাণ প্রতিষ্ঠান এ দুই পক্ষের মধ্যে চুক্তিটি স্বাক্ষর হওয়ার কথা রয়েছে। জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের ওই প্রতিষ্ঠানটির স্বত্বাধিকারী বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন ব্যবসায়ী ড. কালীপ্রসাদ চৌধুরী চুক্তির বিষয়টি চূড়ান্ত করতে ঢাকায় এসে এর আগে একাধিকবার বৈঠক করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে।

চুক্তির শর্ত অনুযায়ী কেপিসি গ্রুপ পূর্বাচলে প্রায় ৭০ একর জায়গা নিয়ে একটি আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টার, একটি আধুনিক স্পোর্টস কমপ্লেক্স ও ১৪২ তলাবিশিষ্ট আইকনিক টাওয়ার নির্মাণ করবে, যেটি হবে বিশ্বের সর্বোচ্চ ভবনগুলোর একটি। কনভেনশন সেন্টারের মূল মিলনায়তনে পাঁচ হাজার লোক বসার ব্যবস্থা থাকবে। স্পোর্টস কমপ্লেক্সের মূল স্টেডিয়ামের ধারণক্ষমতা হবে ৫০ হাজার। এ ছাড়া একটি আধুনিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালও থাকতে পারে প্রকল্প এলাকায়। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ওই অঞ্চলে ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে বলে আশা করছে সরকার। সূত্র জানায়, স্বপ্নের এই আইকনিক টাওয়ার নির্মাণ হবে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বে। এখানে নির্মাণ প্রতিষ্ঠানেরও উল্লেখযোগ্য বিনিয়োগ থাকবে। ২০১৮ সালের মধ্যে প্রকল্পটি সম্পন্ন করার আশা করছে সরকার। এজন্য বাজেটে পৃথক বরাদ্দও রাখা হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে গণপূর্ত বিভাগ ৪০ একর জমি দেবে। বাকি জমি কেনা হবে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, গত বছর আগস্টে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে এক বৈঠকে রাজধানী ঢাকার আশপাশে এ ধরনের একটি আইকনিক টাওয়ার নির্মাণের প্রস্তাব দেন কেপিসি গ্রুপের স্বত্বাধিকারী ড. কালীপ্রসাদ চৌধুরী। ওই সময় সম্ভাব্য জায়গা নির্বাচন এবং অর্থায়নের বিষয়গুলো নিয়েও আলোচনা হয়। এ লক্ষ্যে কেরানীগঞ্জে প্রায় ১০০ একর জমি খোঁজার জন্য ওই সময় গণপূর্ত মন্ত্রণালয় ঢাকার ডেপুটি কমিশনারকে চিঠিও লিখেছিল। তবে ওই এলাকার বেলেমাটি এত বেশি উচ্চতাসম্পন্ন বিল্ডিং নির্মাণের উপযোগী না হওয়ায় এবং জাতীয় যোগাযোগের সুযোগ-সুবিধার বিষয়টি মাথায় রেখে পরে পূর্বাচলে আইকনিক টাওয়ার নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ২ জুন জাতীয় সংসদে ঢাকায় আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারসহ আইকনিক টাওয়ার নির্মাণে নিজের স্বপ্নের কথা বলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণায় অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘পূর্বাচল ও এর নিকটস্থ এলাকা নিয়ে একটি স্বতন্ত্র মহানগর গড়ে তোলার উদ্যোগ ইতিমধ্যে নেওয়া হয়েছে। এ মহানগরে পিপিপির আদলে একটি প্রকল্প বাস্তবায়নের চিন্তাভাবনা করছি। ’ দেশি-বিদেশি সবার কাছেই স্থাপনাগুলো বিশেষভাবে আকর্ষণীয় ও দৃষ্টিনন্দন হিসেবে সমাদৃত হবে বলেও বাজেট ঘোষণায় উল্লেখ করেন অর্থমন্ত্রী।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow