Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ জুন, ২০১৬ ২৩:৪৫
আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে ৪০ রাজনৈতিক দলকে ইসির চিঠি
নিজস্ব প্রতিবেদক

বার্ষিক আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে ৪০টি রাজনৈতিক দলকে চিঠি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে আর্থিক প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

রাজনৈদিক দলের মহাসচিব ও সাধারণ সম্পাদক বরাবর এই চিঠি পাঠানো হয়েছে। ইসি সহকারী সচিব রৌশন আরা বেগম স্বাক্ষরিত এ চিঠি বিশেষ বাহকের মাধ্যমে গতকাল পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া চিঠির সঙ্গে আর্থিক প্রতিবেদন দেওয়ার একটি ‘ছক’ পাঠানো হয়েছে।

ইসির একজন সহকারী সচিব বলেন, গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও)-এর রাজনৈতিক দল নিবন্ধন বিধিমালা অনুযায়ী পূর্ববর্তী পঞ্জিকা বছরে দলের বার্ষিক আয়-ব্যয়ের হিসাব ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে ইসির কাছে জমা দেওয়ার বিধান রয়েছে। এ হিসাব জমা দেওয়ার তাগিদ দিয়ে নিবন্ধিত ৪০ দলকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। এই কর্মকর্তা বলেন, এক্ষেত্রে একটি রেজিস্টার্ড চাটার্ড ফার্ম দিয়ে অডিট করতে হবে। প্রতিবেদনে অডিট কোম্পানি এবং দলের উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের স্বাক্ষর বা সিলমোহর থাকতে হবে। ২০১৫ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত রাজনৈতিক দলগুলোর কোন খাত থেকে কত টাকা আয় হয়েছে, কত টাকা ব্যয় হয়েছে, বিল-ভাউচারসহ তার পূর্ণাঙ্গ তথ্য কমিশনের নির্ধারিত একটি ছকে জমা দিতে হবে। ২০০৮ সাল থেকে নিবন্ধন প্রথা চালুর পর গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ মেনে প্রতি বছর আর্থিক লেনদেনের হিসাব দেওয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর। তখন নিবন্ধন পেলেও দশম সংসদের আগে ২০১৩ সালে আদালতের আদেশে জামায়াতে ইসলামীর নিবন্ধন অবৈধ রয়েছে। সংশোধিত গঠনতন্ত্র জমা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় বাতিল হয় ফ্রিডম পার্টির নিবন্ধনও। গণপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশ ১৯৭২-এর ৯০-এইচ (১) (সি) ধারা অনুযায়ী নিবন্ধিত কোনো দল পরপর তিন বছর কমিশনে আর্থিক প্রতিবেদন দিতে ব্যর্থ হলে নিবন্ধন বাতিলের এখতিয়ার রয়েছে ইসির। এবার অন্তত দুটি দল রয়েছে, যাদের বার্ষিক প্রতিবেদন পরপর দুই বছর পায়নি ইসি।

up-arrow