Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৭ জুন, ২০১৬ ০২:০৩
ফেভিকল আইকা দিয়ে লাচ্ছা সেমাই
নিজস্ব প্রতিবেদক

ক্ষতিকারক ফেভিকল গাম ও আইকা ব্যবহার করে নোংরা-অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে তৈরি পাঁচ লাখ টাকার সেমাই ও লাচ্ছা সেমাই জব্দ করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

গতকাল বিকালে ঢাকা জেলা প্রশাসন, ৫-এপিবিএন ও বিএসটিআই, এর যৌথ উদ্যোগে কেরানীগঞ্জ থানাধীন বড় কুশিয়ারবাগ এলাকায় এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।

ঢাকা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদ এলাহী জানান, সোমা ফুড প্রোডাক্টস দীর্ঘদিন যাবৎ ক্ষতিকারক ফেভিকল গাম ও আইকা ব্যবহার ও নোংরা অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে এইচ কে লাচ্ছা সেমাই প্রস্তুত করে বিক্রি করে আসছে। সেমাই তৈরির পরিবেশ অত্যন্ত নোংরা ও দুর্গন্ধযুক্ত। প্রচুর মাছি, তেলাপোকা ও ময়লা-আবর্জনা কারখানাটিতে পাওয়া যায়। সাধারণত এ কারখানাটি গভীর রাতে সেমাই প্রস্তুত করে থাকে। অভিযানকালে মালিক হারাধন কুমার পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলার নির্দেশ দেওয়া হয় এবং লাইসেন্স বাতিলের জন্য বিএসটিআইকে বলা হয়।

তিন বেকারিকে ছয় লাখ টাকা জরিমানা : বিএসটিআই লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ করে কেক, সেমাই, ঘি, মিষ্টি, লাড্ডু, পাউরুটি, টোস্ট, বিস্কুট ও বেকারী পন্য উৎপাদন করায় র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত গতকাল রাজধানীর হাজারীবাগে অভিযান চালিয়ে তিন বেকারীর নয়জনকে ৬ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন। বেকারী তিনটি হলো রানা ব্রেড এন্ড বিস্কুট, এস আর সাথী বেকারি ও খান ফুড প্রোডাক্টস। সকালে র‌্যাব-২ এর সহযোগিতায় এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন। দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে রানা ব্রেড এন্ড বিস্কুটের সাইফুল ইসলাম, বাদল, ইকবাল, কালাম, গোবিন্দ চন্দকে ৪ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাস করে কারাদণ্ড; এস আর সাথী বেকারির দুলাল মিয়া ও সুমন মিয়াকে এক লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ১৫ দিন করে কারাদণ্ড এবং খান ফুড প্রোডাক্টসের আব্দুর রউফ ও সবুজ হাওলাদারকে এক লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ১৫ দিন করে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, অভিযানে দেখা গেছে তারা এসব খাদ্য দ্রব্যে নিষিদ্ধ ঘন চিনি, তথ্য বিহিন টেক্সটাইল রং ও ফ্লেভার ব্যবহার করছে।

up-arrow