Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১ অক্টোবর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ১৮ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ১৭ জুন, ২০১৬ ২৩:৩৯
আড়াই লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার টেকনাফে
টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

ইয়াবা পাচারের নিরাপদ রুট হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে সাগর উপকূল। পৃথক অভিযানে গতকাল ২ লাখ ৬০ হাজার পিস ইয়াবাসহ এক চালককে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। প্রশাসনের হাত থেকে রক্ষা পেতে ইয়াবা পাচারকারীরা বড় বড় চালান বঙ্গোপসাগর দিয়ে পাচার করছে। সাম্প্রতিক সময়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার চালান সাগর দিয়ে সরাসরি দেশের বিভিন্ন স্থানে ঢুকে পড়ছে। তবে নাফ নদে প্রশাসন কড়াকড়ি আরোপ করায় কতিপয় ইয়াবা পাচারকারী টেকনাফে বঙ্গোপসাগর উপকূলকে নিরাপদ রুট হিসেবে বেছে নিয়েছে। বিজিবি সূত্র জানায়, গতকাল ভোরে টু বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. আবু জার আল জাহিদের নেতৃত্বে বিজিবির একটি স্পেশাল টহল দল সাবরাং ইউনিয়নের মুন্ডার ডেইল সাগর উপকূল দিয়ে ইয়াবার একটি বড় চালান পাচারের গোপন সংবাদে অভিযানে যায়। কিন্তু ইয়াবা পাচারকারীরা বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়। পরে সেখানে তল্লাশি চালিয়ে পরিত্যক্ত একটি ইয়াবাভর্তি প্যাকেট উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার প্যাকেট ব্যাটালিয়ন সদরে নিয়ে এসে গণনা করে ২ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।

তবে এ সময় ইয়াবা উদ্ধারের সঙ্গে কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। উদ্ধার ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা বলে জানা গেছে। এ ছাড়া গতকাল দুপুরে টেকনাফ সদরের নাজিরপাড়া বিওপির নায়েক সুবেদার রাকিবুল ইসলালের নেতৃত্বে বিজিবির টহল দল সদর ইউনিয়নের গোদারবিল এলাকায় একটি যাত্রীবাহী সিএনজি অটোরিকশায় তল্লাশি চালায়। সেখানে ১০ হাজার পিস ইয়াবাসহ চালককে আটক করা হয়। তবে অটোরিকশায় থাকা দুই যাত্রী পালিয়ে যান। এ সময় অটোরিকশাটি জব্দ করা হয়। উদ্ধার ইয়াবাসহ সিএনজির আনুমানিক মূল্য ৩৫ লাখ ১ হাজার টাকা বলে জানিয়েছে বিজিবি। আটক সিএনজিচালক আবদুল করিম সাবরাং সিকদারপাড়ার মৃত সালাম আহমদের ছেলে।




up-arrow