Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ১৯ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ১৯ জুন, ২০১৬ ০০:৩০
সরকারিভাবে আর শ্রমিক নেবে না মালয়েশিয়া
নিজস্ব প্রতিবেদক

মালয়েশিয়া সরকারিভাবে আর বিদেশি শ্রমিক নেবে না। এখন থেকে বেসরকারিভাবে যেসব কোম্পানি এবং নিয়োগদাতাদের প্রয়োজন হবে, তারা নিজেরাই উদ্যোগী হয়ে বিদেশি শ্রমিক নেবে। সরকার শুধু প্রয়োজন বিবেচনা করে বিদেশি শ্রমিকের নিয়োগের ব্যাপারে অনুমোদন দেবে।

গত বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির উপ-প্রধানমন্ত্রী দাতুক সেরি ড. আহমাদ জাহিদ হামিদি এ কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘সরকারের দিকে আঙ্গুল তুলবেন না। কারণ শ্রমিকের চাহিদা এসেছে শিল্প খাত থেকে। সরকার শুধু এই প্রক্রিয়াকে সহজতর করতে চায়। আসলেই দেশে কী পরিমাণ বিদেশি শ্রমিক দরকার, তা নিয়ে সরকারি বিভিন্ন সংস্থা কাজ করছে। এ গবেষণা সরকারকে দেশে বিদেশি শ্রমিক ব্যবস্থাপনার  ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নিতে সহযোগিতা করবে।’ আহমাদ জাহিদ জানিয়েছেন, বিদেশি শ্রমিকের সংকটের কারণে কিছু অর্থনৈতিক খাত মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিশেষ করে পাম অয়েল শিল্প প্রতি মাসে দুই বিলিয়ন মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত করে ক্ষতির মধ্যে পড়েছে। আর শ্রমিকের অভাবে কমপক্ষে ২৪টি আসবাব তৈরির কারখানা বন্ধ হয়ে গেছে। তিনি বলেন, সরকার প্রয়োজন বিবেচনা করে বিদেশি শ্রমিকের নিয়োগের ব্যাপারে অনুমোদন দিলেও এ ক্ষেত্রে কঠোর শর্ত মানতে হবে। তিনি উল্লেখ করেন, মালয়েশিয়ার অবৈধ শ্রমিক প্রবেশ ঠেকাতে মন্ত্রণালয়ও তত্পরতা দেখিয়েছে। এ বছরের ১৫ জুন পর্যন্ত ৫৬২২টি অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এসব অভিযানে ৯১ হাজার ৭৫ জন বিদেশি শ্রমিকের কাগজপত্র যাচাই করা হয়েছে, যার মধ্যে ২৭ হাজার ৪৯৮ জনের বৈধ কাগজপত্র না থাকায় তাদের আটক করা হয়েছে। এমনকি ৬৬২ জন নিয়োগদাতা এবং বিদেশি শ্রমিক আনার সাতটি চক্রের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, মালয়েশিয়ায় চলমান অবৈধ বিদেশি শ্রমিকদের বৈধকরণ প্রক্রিয়ার (রি-হায়ারিং) প্রকল্পে গত ১৩ জুন পর্যন্ত বাংলাদেশিরাসহ এক লাখ ২৪ হাজার ২৭৯ জন শ্রমিক নিবন্ধন করেছেন। বৈধকরণ প্রকল্পে শুধু বাংলাদেশি কতজন নিবন্ধন করেছেন, এর সঠিক সংখ্যা জানা যায়নি। আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত নিবন্ধনের এ সুযোগ রয়েছে।




up-arrow