Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ২০ জুন, ২০১৬ ২৩:৩৭
সাফল্য
আলাদা হলো যমজ শিশু
নিজস্ব প্রতিবেদক
আলাদা হলো যমজ শিশু

দেশে প্রথমবারের মতো এক মাথার জোড়া শিশুর অপারেশন সফল হয়েছে। গতকাল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে তিন মাস আগে ভর্তি হওয়া শিশুটির অপারেশন সম্পন্ন হয়েছে। সার্জারি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. রুহুল আমিনের নেতৃত্বে ১৮ সদস্যের একটি চিকিৎসক টিম এই অপারেশন করে।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, চিকিৎসাবিজ্ঞানে এ ধরনের জোড়া বা যমজকে প্যারাসাইটিক টুইন বা অপূর্ণাঙ্গ যমজ বলা হয়। গত ৭ মার্চ শিশুটি জন্ম নেয়। তারপর থেকে এই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিল। অপারেশনের মাধ্যমে শিশু দুটিকে পৃথক করতে প্রায় আড়াই লাখ টাকা খরচ হয়েছে। জানা গেছে, প্যারাসাইটিক টুইন সমস্যা নিয়ে জন্মানো এই শিশুর স্বাভাবিক জন্ম দেন বাগেরহাটের হীরামণি নামে এক গৃহিণী। তার স্বামীর নাম মো. জাকারিয়া। তিনি পেশায় দিনমজুর। যমজ শিশুটির জন্মের তৃতীয় দিন ১০ মার্চ বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। এরপর থেকেই শিশুটি হাসপাতালের সি ব্লকের পঞ্চমতলার ৫-ডি ওয়ার্ডে ১৩ নম্বর বেডে শিশু সার্জারি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. রুহুল আমিনের নিবিড় তত্ত্বাবধানে ছিল।

সফল অপারেশনের পর অধ্যাপক ডা. মো. রুহুল আমিন বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, আমরা অপারেশনে সাকসেকফুল হয়েছি। আশা করছি শিশুটি ভালো থাকবে। এখন তাকে ইন্টার কেয়ারে রাখা হয়েছে। এদিকে এই শিশুটির অস্ত্রোপচার শেষ হতে না হতেই আরেক জোড়াশিশু ভর্তি হয়েছে একই হাসপাতালে। চার দিন বয়সী এই শিশুটির বুকে জোড়া লাগানো। তার শরীরের ওপর ও নিচের অংশ পরিপূর্ণ। বিএসএমএমইউ এর শিশু সার্জারি বিভাগের অধ্যাপক ডা. মো. তোসাদ্দেক হোসেন সিদ্দিকী জানান, শিশুটির জন্ম যশোরের চৌগাছায়। জোড়া অবস্থায় জন্মের পর তাকে প্রথমে চৌগাছায় একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে যশোরে তারপর শিশুটির খোঁজ পেয়ে বিএসএমএমইউ এর উপাচার্য ডা. কামরুল হাসান খান এখানে নিয়ে আসার ব্যবস্থা করেন।




এই পাতার আরো খবর
up-arrow