Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ২০ জুন, ২০১৬ ২৩:৩৭
বট-পাকুড়ের ধুমধাম বিয়ে
রেজাউল করিম মানিক, লালমনিরহাট
বট-পাকুড়ের ধুমধাম বিয়ে

লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা উপজেলার চর ডাউয়াবাড়ি গ্রামে ধুমধামের সঙ্গে সম্পন্ন হয়েছে দুটি গাছের বিয়ের অনুষ্ঠান। একটি বটগাছের সঙ্গে পাকুড় গাছের বিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ বিয়ে দেখতে শত শত মানুষ ভিড় জমায় বিয়ে বাড়িতে। উপজেলার চর ডাউয়াবাড়ি গ্রামের ধনঞ্জয় রায়ের স্ত্রী রেনুকা বালার (৪৬) বাড়ির উঠানে সোমবার দুপুরে এ বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। বিয়ে বাড়িতে মিষ্টি বিতরণ ও খাওয়া-দাওয়ারও কমতি ছিল না। দিনভর চলে নাচ গান ও বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। বিয়ের দিন সকাল থেকেই ওই বাড়িতে শত শত উত্সুক মানুষ বর-কনেকে দেখতে ভিড় জমায়। বিয়ের অনুষ্ঠানে আসা উত্সুক দর্শকদের খাওয়ানো হয় পান-সুপারি। আর দূর-দূরান্ত থেকে আগতদের খাওয়ানো হয় খিচুড়ি। এলাকাবাসী জানান, উপজেলার চর ডাউয়াবাড়ি গ্রামের ধনঞ্জয় রায়ের স্ত্রী রেনুকা বালার বাড়ির উঠানে এক বছর আগে একটি বট এবং তার কিছুদিন আগে একটি পাকুড় গাছের জন্ম হয়। বাড়িতে এ সঙ্গে বট-পাকুড় গাছ জন্ম নিলে তা মঙ্গলের প্রতীক ভেবে রেনুকা বালা  গাছ দুটির পরিচর্যা করতে থাকেন। রেনুকা বালা সাংবাদিকদের জানান, তিনি নাকি পূর্ব পুরুষের মুখে শুনেছেন, এক বাড়িতে বট-পাকুড়ের গাছ জন্মালে তাদের বিয়ে দিতে হয়। তাই তিনি আত্মীয়স্বজনকে আমন্ত্রণ জানিয়ে ধুমধামের সঙ্গে বট-পাকুড় গাছের বিয়ে দেন। বিয়ে উপলক্ষে  চলে নাচ-গান ও বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। বর হিসেবে পাকুড় গাছকে পরানো হয় নতুন লুঙ্গি-গামছা। আর কনে বট গাছকে পরানো হয় নতুন লাল পেড়ে হলুদ শাড়ি। চলতি বর্ষাকালে কথিত বর-কনেকে বাড়ি থেকে তুলে অন্য জায়াগায় একই গর্তে পুনঃরোপণ করা হবে বলেও জানান তিনি।




এই পাতার আরো খবর
up-arrow