Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ২৪ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৪ জুন, ২০১৬ ০১:৩৪
যশোরে ট্রেন প্রাইভেট কার সংঘর্ষ নিহত ৫
নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর

যশোর সদর উপজেলার সাতমাইল মানিকদিহি এলাকায় ট্রেনের সঙ্গে একটি প্রাইভেট কারের সংঘর্ষে  নানী-নাতিসহ পাঁচজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন দুজন।

নিহতরা হলেন যশোরের কেশবপুর উপজেলার চাচড়াইল গ্রামের রেজাউল কবির রাজু (৩৮), সদর উপজেলার তীরেরহাট গ্রামের নিত্যপদ বিশ্বাসের ছেলে চয়ন (১০), চয়নের নানী জয়া রানী সরকার (৫২) ও প্রাইভেট কারের চালক কেশবপুর উপজেলার বাইশা গ্রামের মো. হাকিম (৩২)। এ দুর্ঘটনায় দীপিকা রানী ও বাঁধন নামে দুজন আহত হয়েছেন। তাদের যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত দীপিকা রানী জানান, তিনি তার বাবার বাড়ি কেশবপুর থেকে একটি প্রাইভেট কারে যশোর সদর উপজেলার তীরেরহাটে শ্বশুরবাড়ি যাচ্ছিলেন। পথে সাতমাইল মথুরাপুরে একটি ট্রেনের সঙ্গে তাদের প্রাইভেট কারের সংঘর্ষ হয়। যশোর রেলওয়ে পুলিশের (জিআরপি) এটিএসআই আজগর আলী জানান, খুলনা থেকে রাজশাহীগামী চিত্রা নামের ট্রেনটি যশোর স্টেশন থেকে বেলা ১১টায় ছেড়ে যায়। এর ২০ মিনিট পরই মথুরাপুরে দুর্ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক কল্লোল কুমার সাহা তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ছাড়া ঘটনাস্থলে নিহত জয়া রানী সরকারের লাশ বাড়িতে নিয়ে যান স্বজনরা। যশোর ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক পরিমল কুণ্ডু বলেন, ‘বেলা ১২টা ৫৫ মিনিটে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। ’ তিনি বলেন, ‘ঘটনাস্থলে এলজিইডির একটি রাস্তা রেললাইনকে ক্রস করেছে। এ রাস্তাটি দিয়ে সব সময় মানুষ ও বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করে। অথচ সেখানে কোনো নিরাপত্তা গেট বা গেটম্যান নেই। এ রকম একটি স্থানে এ ধরনের দুর্ঘটনা ঘটা খুবই স্বাভাবিক। ’ দুর্ঘটনাস্থলে দ্রুত একটি নিরাপত্তা গেট নির্মাণ ও গেটম্যান নিয়োগ দেওয়ার জন্য রেলওয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা। আহত দীপিকা রানীর ভাশুর চিত্তরঞ্জন দাস জানান, দুর্ঘটনায় দীপিকা রানীর ছেলে চয়ন (১০) ও মা জয়া রানী সরকার (৫২) নিহত হয়েছেন।

এ ছাড়া নিহত অপর দুজনের মধ্যে রেজাউল কবির রাজু সমতা ওয়ার্ল্ড ফাউন্ডেশন নামের একটি এনজিওর পরিচালক ও দীপিকাদের প্রতিবেশী। আর মো. হাকিম (৩২) প্রাইভেট কারের চালক ছিলেন। তার বাড়ি কেশবপুর উপজেলার বাইশা গ্রামে।

up-arrow