Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : রবিবার, ২৬ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৫ জুন, ২০১৬ ২৩:১২
পাতাল ও বুলেট ট্রেন হবে : প্রধানমন্ত্রী
ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে নতুন ট্রেন সোনার বাংলা উদ্বোধন
নিজস্ব প্রতিবেদক
পাতাল ও বুলেট ট্রেন হবে : প্রধানমন্ত্রী

পর্যায়ক্রমে দেশের সব জেলায় রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা চালু করা হবে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল দুপুরে রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে নতুন ট্রেন ‘সোনার বাংলা’ এক্সপ্রেসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশকে রেল যোগাযোগের আওতায় আনা হবে। ভবিষ্যতে দেশে বুলেট ট্রেন ও পাতাল রেল চলবে। শেখ হাসিনা বলেন, সেদিন খুব বেশি দূরে নয় বাংলাদেশেও আমরা বুলেট ট্রেন চালু করতে সক্ষম হব ইনশা আল্লাহ। এখন সারা বিশ্বে পাতাল রেল কার্যকরী ভূমিকা রাখছে। আমরা এর ওপর ফিজিবিলিটি স্ট্যাডি করছি। আশা করছি এখানেও আমরা সফল হব। কাজেই আগামী দিনে পাতাল রেলও আমরা করতে পারব। প্রধানমন্ত্রী রেলের উন্নয়নে তার সরকারের অবদানের কথা তুলে ধরে বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে ৯৮টি নতুন ট্রেন চালু হয়েছে। প্রতিবন্ধীরা যেন রেলের সুবিধা পেতে পারে সেজন্য পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। সকালে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে অংশগ্রহণ শেষে সেখান থেকে বের হয়ে খিলগাঁওয়ে নবনির্মিত ইউলুপ ঘুরে কমলাপুরে যান শেখ হাসিনা। বেলা সাড়ে ১১টায় ২৭০টি কোচ দিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথে নতুন বিরতিহীন ট্রেন ‘সোনার বাংলা এক্সপ্রেস’-এর কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন, রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক, রেল সচিব ফিরোজ সালাহ উদ্দিন, রেলওয়ের মহাপরিচালক মোহাম্মদ আমজাদ হোসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক, সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক প্রমুখ। পরে প্রধানমন্ত্রী নতুন ট্রেন ঘুরে দেখেন। সেখান থেকেই স্থানীয় সরকার বিভাগের তৈরি খিলগাঁও ফ্লাইওভারের ইউলুপ খুলে দেওয়ার ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী। সেখান থেকে ফেরার পথে প্রগতি সরণি-বনশ্রী সংযোগ সড়কে নেমে হাতিরঝিল প্রকল্পের সাউথ ইউলুপের ফলক উন্মোচন করেন এবং মোনাজাতে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী।

৫ ঘণ্টা ৪০ মিনিটে চট্টগ্রামে পৌঁছাবে সোনার বাংলা এক্সপ্রেস : আজ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে চলাচল শুরু করবে ‘সোনার বাংলা এক্সপ্রেস’। প্রতিদিন সকাল ৭টায় ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে ট্রেনটি ছেড়ে চট্টগ্রাম পৌঁছবে দুপুর ১২টা ৪০ মিনিটে। অর্থাৎ ৫ ঘণ্টা ৪০ মিনিটে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে পৌঁছবে নতুন এই ট্রেন। অন্যদিকে চট্টগ্রাম থেকে বিকাল ৫টায় ছেড়ে আবার ঢাকায় পৌঁছবে রাত ১০টা ৪০ মিনিটে। ১৬টি বগির এই ট্রেনে যাত্রী ধারণক্ষমতা ৭৪৬ জন। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত (এসি) মোট আসন ২২০টি, শোভন চেয়ারের মোট আসন ৪২০টি, এসি বাথের আসন রয়েছে ৬৬টি। এ ছাড়া দুটি খাবার গাড়ির সঙ্গে ৪০টি আসন রয়েছে। নতুন এই ট্রেনটি শুধুমাত্র ঢাকার বিমানবন্দর রেলস্টেশনে থামবে।

প্রধানমন্ত্রীকে ১০টি স্কুলবাস উপহার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ১০টি স্কুলবাস উপহার দিয়েছে বাংলাদেশের ইফাদ অটোজ লিমিটেড এবং ভারতের অশোক লেল্যান্ড লিমিটেড। পরে প্রধানমন্ত্রী ১০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এই ১০টি বাস উপহার হিসেবে দেন। গতকাল দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন গণভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে ‘বিজয়’ নামে এ বাসগুলো উপহার দেওয়া হয়। প্রথমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ১০টি গাড়ির চাবি হস্তান্তর করেন ইফাদ গ্রুপের চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ টিপু। পরে প্রধানমন্ত্রী এ ১০টি গাড়ির চাবি ১০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানের হাতে হস্তান্তর করেন। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো— রংপুর সরকারি কলেজ, দিনাজপুর সরকারি কলেজ, গোপালগঞ্জের সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজ, প্রয়াস (বিশেষায়িত স্কুল) সাভার, নেত্রকোনা সরকারি স্কুল, রাঙামাটি পাবলিক কলেজ, রাজধানীর সরকারি বাঙলা কলেজ, কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজ, যশোরের সরকারি এম এম কলেজ ও কক্সবাজার সরকারি কলেজ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মো. শফিউল হক, ইফাদ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তানজির আহমেদ, ইফাদ অটোজ লিমিটেডের এমডি তাসকিন আহমেদ ও পরিচালক তাফসিল আহমেদ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow