Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ২৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৬ জুন, ২০১৬ ২২:৫৬
আওয়ামী লীগই জঙ্গি দল : খালেদা জিয়া
নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, আওয়ামী লীগই জঙ্গি দল। এদের কাছে বিপুল পরিমাণ দেশি-বিদেশি অস্ত্র ও গোলাবারুদ রয়েছে।

এদের ধরলেই জঙ্গি ধরা হবে। দেশ জঙ্গিমুক্ত হবে এবং মানুষের মাঝে শান্তি আসবে। বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) একাংশ ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) একাংশ আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবন মিলনায়তনে গতকাল এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।   উল্লেখ্য, জাতীয়  প্রেসক্লাবে বিএফইউজে ও ডিইউজে এই ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ক্লাব কর্তৃপক্ষ স্থান বরাদ্দের অনুমতি বাতিল করায় ভেন্যু পরিবর্তন করে সুপ্রিম কোর্ট বার মিলনায়তনে এ ইফতারের আয়োজন করা হয়। খালেদা জিয়ার সঙ্গে মূল মঞ্চে ইফতার করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ, নয়াদিগন্ত সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিন, নিউজ টুডে সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, বিএফইউজে (একাংশ) সভাপতি শওকত মাহমুদ, মহাসচিব এম আবদুল্লাহ, ডিইউজে একাংশ সভাপতি আবদুল হাই শিকদার, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান প্রমুখ।

খালেদা জিয়া বলেন, দেশে এখন লুটপাটের মহোৎসব চলছে। জাতীয় প্রেসক্লাবও দখল হয়ে গেছে। এ সরকার জনগণের দ্বারা নির্বাচিত নয়। এদের ন্যূনতম সম্মান কিংবা লজ্জাবোধ থাকলে এতদিনে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়াত। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, মইনুদ্দিন-ফখরুদ্দীন সরকারের দেওয়া মামলাগুলো এখনো রয়েছে। তারা শেখ হাসিনার নামে ১৫টি মামলা দিয়েছিল। তার সব মামলাই উঠিয়ে নেওয়া হয়েছে। আর আমার নামে যে ৫টি মামলা দিয়েছিল সেগুলো রেখে দিয়েছে। শেখ হাসিনার নামে দেওয়া মামলা উঠে গেলে আর কারও নামে মামলা থাকতে পারে না। তিনি বলেন, দেশে যদি আইনের শাসন না থাকে, তাহলে আইনজীবী যত ভালোই হোক না কেন, কোনো লাভ হয় না। খালেদা জিয়া আরও বলেন, বিচার বিভাগের ওপর এ সরকারের কোনো আস্থা নেই। এরা আইনের শাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে যাচ্ছে। উচ্চ আদালত থেকে বলা হয়েছে, বিনা পরোয়ানায় এবং সাদা পোশাকে কাউকে গ্রেফতার করা যাবে না। কিন্তু এ সরকার ও তাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী উচ্চ আদালতের সেই নির্দেশ মানছে না। ডিবি পুলিশের সদস্যরা ক্রসফায়ারের নামে সাধারণ মানুষ ও বিরোধী দলের নেতা-কর্মীকে ধরে নিয়ে গুলি করে হত্যা করছে। আর একটা করে বন্দুকযুদ্ধের গল্প তৈরি করছে। কিন্তু মানুষ আর এসব কাহিনী বিশ্বাস করে না। তিনি আরও বলেন, এই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শেখ হাসিনার আন্ডারে। কাজেই বিনাবিচারে এই হত্যার দায় তাকেও বহন করতে হবে। সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদকে দেখিয়ে খালেদা জিয়া বলেন, সে বিনা অপরাধে ১০ মাস জেল খেটেছে। শফিক রেহমান, মাহমুদুর রহমান, মাহমুদুর রহমান মান্না এখনো জেলে আছে। তাদেরসহ সব রাজবন্দীর অবিলম্বে মুক্তি দাবি করেন খালেদা জিয়া।

up-arrow