Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুলাই, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুলাই, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ৩ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩ জুলাই, ২০১৬ ০০:১৫
রাজধানীতে ছিল উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা
নিজস্ব প্রতিবেদক

শুক্রবার রাজধানীর বাসিন্দাদের অনেকেরই ব্যস্ততা ছিল ঈদের কেনাকাটা ও বাড়ি ফেরাকে ঘিরে। রাত পৌনে ৯টার দিকে গুলশান ২ নম্বরে হলি আর্টিসান বেকারিতে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে রাজধানীতে। উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা বিরাজ করে সবার মাঝে। অনেকে ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজেদের উদ্বেগের কথাও জানান। ঘটনার খোঁজখবর নিতে সারাক্ষণ টেলিভিশনের সামনেই বসে ছিলেন অনেকে। সময় যত যেতে থাকে তত পরিষ্কার হতে থাকে প্রাথমিক ধারণার চেয়েও ঘটনা অনেক বেশি ভয়ঙ্কর। খবর ছড়িয়ে পড়ে পুলিশের সঙ্গে যাদের গোলাগুলি হচ্ছে, তারা আসলে একটি রেস্তোরাঁয় দেশি-বিদেশিদের জিম্মি করে রেখেছে। ঢাকার অভিজাত ওই এলাকার বাসিন্দাদের পাশাপাশি আশপাশের বিপণিবিতান ও রেস্তোরাঁয় আসা লোকজন এবং স্বজনদের মধ্যে এমন খবর পৌঁছাতেই তারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। ভীতিকর অবস্থার মধ্য দিয়ে রাত কাটিয়েছেন গুলশানের বাসিন্দারা। দেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এমন জিম্মিদশা সবাইকে হতবাক করে দিয়েছে। রাত পৌনে ৯টার দিকে আচমকা সম্পূর্ণ নতুন এক পরিস্থিতির মুখে পড়তে হলো বাংলাদেশকে। গুলশান-২ নম্বরের ৭৯ নম্বর রোডে গোলাগুলির ঘটনা ঘটছে। ততক্ষণে বিভিন্ন মিডিয়া তাত্ক্ষণিক খবর সম্প্রচার করছিল। ঘটনার গভীরতা তখনো অনেকের বোধগম্য না হলেও বিষয়টি নিয়ে আতঙ্ক বাড়ছিল। পুলিশের ওপর গুলি চালানোর ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গুলশানের নিরাপত্তা বাড়ানো হয়। মোতায়েন করা হয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য। এই দুঃস্বপ্নের সমাধানে স্রষ্টার কাছে প্রার্থনার পাশাপাশি অপারেশনে থাকা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য এবং আটকে পড়া মানুষ যাতে তাদের পরিবারের সঙ্গে পুনর্মিলিত হতে পারেন সেই কামনাও করেছেন সবাই।

এরই মধ্যে রাত ১২টার দিকে খবর পাওয়া যায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে আহত ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন নিহত হয়েছেন। সালাউদ্দিনের নিহত হওয়ার খবরে নতুন মাত্রা পায় আতঙ্কে। এরপর পরিস্থিতির ব্যাখ্যা দিতে ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ। তিনি নিশ্চিত করেন, কয়েকজন অস্ত্রধারী একটি স্প্যানিশ রেস্তোরাঁয় কয়েকজনকে জিম্মি করে রেখেছে। তবে হামলাকারী কতজন বা জিম্মি কতজন, সে সম্পর্কে তিনি কোনো তথ্য দেননি। জাতীয় স্বার্থে ও সাংবাদিকদের নিজেদের নিরাপত্তার স্বার্থে টেলিভিশনের লাইভ সম্প্রচার বন্ধ রাখার আহ্বানও জানান তিনি। তার আহ্বানে সাড়া দিয়ে টিভি চ্যানেলগুলো সরাসরি সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়।

রাত ১টার দিকে শোনা যায়, জিম্মিদের মধ্যে একজন ইঞ্জিনিয়ার আশরাফ করিম রাত ১০টা ৪১ মিনিটে তার চাচা আনোয়ার হোসেনকে ফোন করে জানিয়েছেন, পুলিশকে অনুরোধ করুন ভিতরে যেন গুলি না চালায়। গুলি চালালে তারা (সন্ত্রাসীরা) আমাদের মেরে ফেলবে। এরপর খবর আসে সন্ত্রাসীদের গুলিতে আহত ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের সহকারী কমিশনার রবিউল ইসলামও মারা গেছেন। গুলশানে হামলার এমন সব সংবাদ রাজধানীতে ছড়িয়ে পড়ায় সবাই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। ঘটনার খোঁজখবর নিতে অনেকে সারাক্ষণ টেলিভিশনের সামনেই বসে ছিলেন। জানা গেছে, হামলার খবর পেয়ে বনানী এলাকার মার্কেট-রেস্তোরাঁয় আসা লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। উদ্বেগ নিয়ে রাস্তায় বেরিয়ে পরিবহন সংকটে পড়েন অনেকে। কোনোরকমে গাড়ি পেলেও সেখান থেকে বেরিয়েও বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। মধ্যরাতে কাকলী, মহাখালী, হাতিরঝিল, বাড্ডা, নতুনবাজার, বারিধারা থেকে গুলশানমুখী সড়কগুলো বন্ধ করে দেওয়ায় ঘরে ফিরতে সমস্যায় পড়ার কথা জানান অনেকে। তাদের একজন আবু বকর সিদ্দিক বলেন, বনানী ১১ নম্বরের একটি রেস্তোরাঁয় খেয়ে রাত পৌনে ১২টার দিকে নামার পর দেখেন, রাস্তায় প্রচুর মানুষ দাঁড়িয়ে আছে, কিন্তু কোনো পরিবহন নেই। প্রায় আধা ঘণ্টা পর একটি সিএনজি অটোরিকশা পেলেও তাকে প্রায় তিন গুণ ভাড়া গুনতে হয়। ঈদ সামনে রেখে এ এলাকার শপিং মলগুলোতে ১টা-২টা পর্যন্ত মানুষ কেনাকাটা করে। তাই মোটামুটি গভীর রাত পর্যন্ত এখানে ব্যাপক মানুষের আনাগোনা থাকে। কিন্তু রাতে গুলশানের ঘটনা টিভিতে লাইভ দেখানোর পর সব মানুষ রাস্তায় নেমে এলে ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হয়। অনেক জায়গায় আবার বিভিন্ন শপিং মল বন্ধ করে দেওয়ায় মানুষ রাস্তায় নেমে আসতে বাধ্যও হয়। একসঙ্গে অনেক মানুষ রাস্তায় নামায় গাড়ির অভাবে অনেকে অসহায় অবস্থায় পড়েন।

 

এই পাতার আরো খবর
up-arrow